বরিশালে বিএনপির মিছিলে ক্ষমতাসীনদের হামলা

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তৃতীয় বর্ষপূর্তির দিনটিতে বরিশালে বিএনপির কার্যালয়ের সামনে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। বিএনপির অভিযোগ, তাদের মিছিলের প্রস্তুতিকালে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কর্মীরা হামলা চালায় সেখানে। তবে ক্ষমতাসীন দলের নেতা-কর্মীরা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নগরীর সদর রোডে বিএনপির কার্যালয়ের সামনে এই ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দলীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিএনপির নেতাকর্মীরা কালো পতাকা মিছিলের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এ সময় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা তাদের দিকে তেড়ে আসেন। একপর্যায়ে শুরু হয় মারামারি।

এ সময় ছাত্রলীগের কিছু কর্মীর হাতে লাঠিসোটা ছিল। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
বরিশাল দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম শাহিনের অভিযোগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা বিনা উস্কানিতে তাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। এই ঘটনায় তাদের ৫০ জনের বেশি নেতাকর্মী আহত হন বলে দাবি করেছেন তিনি।

মারামারিতে আহত একজনকে দুপুরে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার নাম আজাদ। তবে তিনি কোন দলের সমর্থক, তা জানা যায়নি।

দশম সংসদ নির্বাচনের তৃতীয় বর্ষপূর্তির এই দিনটিতে রাজধানীতে বিএনপি কোনো কর্মসূচি না রাখলেও জেলায় জেলায় কালোপতাকা হাতে মিছিলের ডাক দিয়েছে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, এদিন বিএনপিকে মাঠে নামতে দেবে না জনগণ। তবে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, যত বাধাই আসুক মাঠে নামবেন তারা।

বিএনপি ৫ জানুয়ারিকে গণতন্ত্র হত্যা দিবস হিসেবে পালন করে। তবে আওয়ামী লীগ এই দিনটিকে পালন করে গণতন্ত্রের বিজয় দিবস হিসেবে। রাজধানীতে আজ দুটি এলাকায় সমাবেশের কথা জানিয়েছে ক্ষমতাসীন দল। রাজধানীর বাইরেও জেলায় জেলায় নানা কর্মসূচি রেখেছে তারা।

বাংলাদেশ সময় ১৫১৫ ঘণ্টা, ০৫ জানুয়ারি, ২০১৭

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/এস

শেয়ার করুন
আমাদের FB পেইজে লাইক করুন