ম্যাকগ্রার সেরা একাদশে পাকিস্তানি বোলারদের আধিপত্য

ওয়াসিম-ওয়াকার-ডোনাল্ড-ওয়ালশ-এব্রোসদের পরবর্তী যুগে গ্লেন ম্যাকগ্রার মতো পেস বোলার দেখেনি ক্রিকেট বিশ্ব! তাই তার মূল্যায়নকে একটু ভিন্ন চোখে দেখাটা খুব একটা অপরাধের হবে না। সম্প্রতি ম্যাকগ্রা অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তানের মধ্যকার তিনটি টেস্ট সিরিজ শেষে সেরা ১১ জন বোলারদের নাম ঘোষণা করেছেন। আসুন, দেখে নেয়া যাক- সেই সৌভাগ্যবান সেরা বোলারদের রেটিং, বোলিং ফিগার এবং টেস্ট সিরিজে সেরা উইকেটপ্রাপ্তি।

১. মিচেল স্টার্ক : (৭.৫/১০)
৩৪.০৭ বোলিং গড়ে  ৩ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে নিয়েছেন ১৪ উইকেট। দেখিয়েছেন দারুণ বোলিং নৈপুণ্য। পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের ভালোই নাকানি-চুবোনি খেতে হয়েছে তার বোলিং সামলাতে। নতুন বলে দারুণ সুইং ও গতির কারণে তার বলের বিপক্ষে খেলতে কষ্টই হয়েছে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের। এই টেস্ট সিরিজে ব্রিসবেনে দ্বিতীয় ইনিংসে আসাদ শফিকের উইকেটটি ছিল তার সেরা প্রাপ্তি। সিরিজে তার সেরা বোলিং ফিগার ছিল (৩৬/৪)।

২.জশ হ্যাজেলউড : (৯/১০)
১৯.৬০ বোলিং গড়ে নিয়েছেন ১৫ উইকেট। দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে তেমন একটা সুবিধা করতে পারেননি। তবে পাকিস্তান সিরিজে জ্বলে উঠেছিলেন তার চিরচেনা রূপে। ব্রিসবেনে প্রথম ইনিংসে নিজের প্রথম বলেই নেয়া ইউনিস খানের উইকেটটি ছিল সিরিজে তার সেরা অর্জন। সিরিজে সেরা বোলিং ফিগার-(৫৫/৪)।

৩.জ্যাকসন বার্ড : (৭.৫/১০)
নামের সঙ্গে নিজের কাজেরও মিল রয়েছে। দারুণভাবে বলকে সুইং করাতে পারেন তিনি। ২৯.২০ বোলিং গড়ে ২ ম্যাচে নিয়েছেন ১০ উইকেট। এই সিরিজে তার সেরা বোলিং ছিল মেলবোর্ন টেস্টের প্রথম ইনিংসে ইউনিস খানের নেয়া উইকেটটি। সিরিজে তার সেরা বোলিং ফিগার- (২৩/৩)।

৪.নাথান লিওন : (৭/১০)
টেস্টের প্রথম ইনিংসে যাই হোক না কেন, টানা দুটি টেস্টে দ্বিতীয় ইনিংসে দেখিয়েছেন অসাধারণ স্পিন বোলিং। ৪৫.৬৩ বোলিং গড়ে ৩ ম্যাচে নিয়েছেন ১১ উইকেট। সেরা উইকেটটি ছিল সামি আসলামের উইকেটটি।

মেলবোর্নে প্রথম ইনিংসে লায়নের বলে স্লিপে থাকা স্মিথের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরতে হয় পাকিস্তানি এই ওপেনারকে। সেরা বোলিং ফিগার-(৩৩/৩)।

৫. স্টিফেন ও`কেফি : (৭/১০)
এই সিরিজে মাত্র একটি টেস্ট খেলার সৌভাগ্য হয়েছে তার। লায়নের সাথে বোলিংয়ে দারুণ পারফর্ম করেছেন এই স্পিনার। সিরিজের শেষ টেস্টে ২৫.৭৫ বোলিং গড়ে নিয়েছেন ৪ উইকেট। সিডনি টেস্টে পাকিস্তানের দ্বিতীয় ইনিংসে ইয়াসির শাহ্য়ের নেয়া উইকেটটি ছিলো তার সেরা প্রাপ্তি।

৬. মোহাম্মদ আমির : (৬.৫/১০)
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্টে তেমন একটা সুবিধা করে উঠতে পারেননি। তবে তার বলের গতি এবং পেস মুগ্ধ করেছে কিংবদন্তী গ্লেন ম্যাকগ্রাকে। ৬১.৬ বোলিং গড়ে ৩ ম্যাচে নিয়েছেন ৫ উইকেট। ব্রিসবেনে প্রথম ইনিংসে ডেভিড ওয়ার্নারের উইকেট শিকারটি ছিল এই টেস্টে তার সেরা উইকেট। এই টেস্টে তার সেরা বোলিং ফিগার- (৯৭/৪)।

৭. ওয়াহাব রিয়াজ : (৭.৫/১০)
৩ ম্যাচে নিয়েছেন ১১ উইকেট। ৩৬.৩৬ বোলিং গড়ে এই টেস্টে তার সেরা বোলিং ফিগার (৮৯/৪)। ব্রিসবেন টেস্টের প্রথম ইনিংসে ম্যাট রেনশো`র উইকেট ছিল তার সেরা উইকেট। তার গতির কাছে পরাস্ত হতে হয় রেনশোকে।

৮. ইয়াসির শাহ : (৫.৫/১০)
৩ ম্যাচে নেন ৮ উইকেট। সেরা বোলিং ফিগার (২০৭/৩)। বোলিং গড় ছিল ৮৪। বেশি একটা কৃতিত্ব দেখাতে পারেননি ইয়াসির। তবে এই টেস্টে সেরা অর্জন ছিল মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়ার প্রথম ইনিংসে নিক মেডিনসনের উইকেটটি।

৯. সোহেল খান : (৫.৫/১০)
৪৩.৬৬ বোলিং গড়ে ১ ম্যাচেই নেন ৩ উইকেট। সেরা বোলিং ফিগার-(১৩১/৩)।

১০. ইমরান খান : (৬/১০)
৭৭ বোলিং গড়ে ১ ম্যাচে নিয়েছেন ২ উইকেট। সেরা বোলিং ফিগার- (১১১/২)।

১১. রাহাত আলী : (৬/১০)
৫৭ বোলিং গড়ে ১ ম্যাচ খেলে নিয়েছেন ২ উইকেট। সেরা বোলিং ফিগার- (৪০/২)।

বাংলাদেশ সময় ১৬৫০ ঘণ্টা, ৮ জানুয়ারি, ২০১৭
লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/এসভি

শেয়ার করুন