দিঘী কী চলচ্চিত্রে ফিরবে? পরীক্ষার পর সিদ্ধান্ত

বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ইতিহাসে শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয় করে সুনাম কুড়িয়েছেন দিঘী। অতীতে তার মতো এতো জনপ্রিয় শিশুশিল্পী চলচ্চিত্রে আর আসেনি। এক পর্যায়ে এমন হয়েছে যে, তাকে ঘিরেই চলচ্চিত্রের গল্প তৈরি হয়েছে। তুমুল জনপ্রিয়তায় থাকা অবস্থায়ই চলচ্চিত্র ছেড়ে  দূরে সরে যান দিঘী। সেই দিঘী এখন কোথায়? দিঘী কি চলচ্চিত্রে ফিরবে? দিঘীর খোঁজ নিতে অনলাইনের একটি সংবাদমাধ্যম যোগাযোগ করে দিঘীর বাবা সুব্রত বড়ুয়ার সঙ্গে।

সুব্রত বড়ুয়া সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘দিঘী এখন স্টামফোর্ড স্কুলে নবম শ্রেণিতে পড়ছে। সে ২০১৩ সালের পর থেকে  আর কোন ছবিতে কাজ করছে না। এসএসসির পর ও সিদ্ধান্ত নেবে কাজ করবে কিনা। যদি ওর ভালো লাগে তাহলে চলচ্চিত্রে অভিনয় করবে। এটা সম্পূর্ণই ওর উপর নির্ভর করছে।’

দিঘী বাংলাদেশের একজন চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ও মডেল। তার বাবা সুব্রত বড়ুয়া চলচ্চিত্র অভিনেতা এবং মা দোযেল চলচ্চিত্রের নায়িকা ছিলেন। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের আগে গ্রামীণফোনের বিজ্ঞাপনে অভিনয় করে সকলের নজরে আসেন দিঘী।

কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘কাবুলিওয়ালা’ দিঘী অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র।  ২০১১ সালে দিঘীর মা দোয়েল মারা যান। মায়ের স্বপ্ন ছিল দিঘী ডাক্তার হবে, সম্প্রতি সেই স্বপ্ন পূরণেরর লক্ষ্যে পড়াশোনায় মনযোগী হওয়ার জন্য চলচ্চিত্রে অভিনয় স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সে।

দিঘী অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রগুলো হলো- লীলা মন্থন (২০১৫), দ্যা স্পিড (২০১২), রিকসাওয়ালার ছেলে (২০১০), অবুঝ শিশু (২০০৮), এক টাকার বউ (২০০৮), বাবা আমার বাবা (২০০৮), সাজঘর (২০০৭), চাচ্চু (২০০৬), দাদীমা (২০০৬), কাবুলিওয়ালা (২০০৬)।

বাংলাদেশ সময় ১৬০৮ ঘণ্টা, ১১ জানুয়ারি, ২০১৭
লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/এসভি

শেয়ার করুন