কলকাতা জয়ে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা ফুটবল খেলাটিতে পুরো ৯০ মিনিট জুড়ে থাকে টানটান উত্তেজনা অসংখ্য ছক্কার স্বাদ মিলে একটি মাত্র গোলে। বিশ্বকাপ ও এশিয়ানকাপের যৌথ বাছাইপর্বে কলকাতার যুব ভারতীয় স্টেডিয়ামে আজ মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ভারত। বাংলাদেশ সময়ে ম্যাচটি শুরু হবে রাত আটটায়।

‘র‌্যাঙ্কিংয়ে ৮৩ ধাপ এগিয়ে থাকা ভারতকে ঠেকিয়ে রাখতে পারবে বাংলাদেশ?’ জেমি ডেকে প্রশ্নটি করে ভ্রু কুঁচকে উত্তরের অপেক্ষায় থাকলেন ভারতীয় দৈনিক পত্রিকার এক সাংবাদিক। আগ্রাসী ট্যাকল থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে ড্রিবল করে বেরিয়ে এসে যেন গোল করলেন বাংলাদেশ কোচ, ‘সব দলের মতো আমরাও জিততে চাই। তবে তিন বা এক পয়েন্ট পেলেই আমাদের উদ্দেশ্য সফল। জানি কাজটা কঠিন।’

বিশ্ব ফুটবলে বাংলাদেশের র‍্যাঙ্কিং এখন ১৮৭, এক সময়ের প্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের অবস্থান ১০৪। মুখোমুখি লড়াইয়ের আগে কলকাতার নিউ টাউনের পাঁচ তারকা হোটেলের বল রুমে ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে অনেক প্রশ্ন। উত্তরগুলোর প্রভাব আর ওই রুমে আটকে থাকেনি। প্রায় সব উত্তরের মধ্যেই লুকিয়ে ছিল জেমির হাত ধরে তরুণ বাংলাদেশের হাঁটি হাঁটি পা পা করে এগিয়ে যাওয়ার সাহস। কলকাতা জয় করতে চান জামাল ভূঁইয়ারা, ‘ভারত অনেক কঠিন প্রতিপক্ষ। তবে নিজেদের দিনে তাদের আমরা হারানোর সামর্থ্য রাখি।’

সাম্প্রতিক সময়ে ক্রিকেটে দুই দেশ মুখোমুখি হলে উত্তেজনার পারদ তুঙ্গে উঠে। বর্তমানে ফুটবলে দুই দলের শক্তির পার্থক্য যতই থাকুক না কেন, উত্তেজনা ছড়িয়েছে সীমান্তের দুই প্রান্তেই। কলকাতা এমনিতেই ফুটবলের শহর। আর ৩৪ বছর পর কলকাতায় মুখোমুখি দুই দেশ।

কলকাতায় সর্বশেষ মুখোমুখি হওয়া ১৯৮৫ সালে। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে ২-১ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। ম্যাচের ১৫ মিনিটের মধ্যে আশীষ ভদ্রের গোলে এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশ সে ম্যাচ হেরেছিল ভবিষ্যতের জানান দিয়েই। কত কিছু হয়ে গিয়েছে মাঝের ৩৪ বছরে! সাফ ফুটবলে ভারতের সাতটি শিরোপা জয়ের বিপরীতে বাংলাদেশের ভান্ডারে একটি। আগে পাশাপাশি হাঁটলেও জোর কদমে অনেক এগিয়ে গিয়েছে ভারত। আয়োজক হিসেবে অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপও খেলেছে।

দুই দলেরই পুঁজি কাতারের বিপক্ষে শেষ ম্যাচের ফল। দোহায় স্বাগতিক কাতারের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে ফুটবল বিশ্বকে চমকে দিয়েছে ভারত। এর এক মাস পরেই ঢাকায় একই দলের বিপক্ষে ২-০ গোলের হারের স্মৃতি নিয়ে কলকাতায় বাংলাদেশ। হোক হার তবু জামালরা নিয়ে এসেছেন এশিয়ান চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে দুর্দান্ত লড়াইয়ের অভিজ্ঞতা।

সেই ম্যাচের ওপর চোখ রেখে বাংলাদেশকে সম্মান দিচ্ছেন ভারতের ক্রোয়েশিয়ান কোচ ইগর স্টিমাচও, ‘আগের দুই ম্যাচে (ওমান ও কাতার) আমাদের কোনো চাপ ছিল না। এই ম্যাচে চাপ আছে। এটা পরিষ্কার, আমরা ৩ পয়েন্ট চাই। তবে বাংলাদেশও এখানে জয়ের স্বপ্ন নিয়েই এসেছে। কাতারের বিপক্ষে তারা দুর্দান্ত খেলেছে। এমনকি তারা জিততেও পারত।’ বাছাইপর্বে দুই ম্যাচ খেলে এক হার ও এক ড্রয়ে ভারতের পয়েন্ট ১ এবং টানা দুই হারে বাংলাদেশের ভান্ডার শূন্য।