চবির ছাত্রীর বড় বোনকে যৌন হয়রানির ঘটনায় ছাত্রের বিরুদ্ধে মামলা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মাহফুজের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে

চবির ছাত্রীর বড় বোনকে যৌন হয়রানির ঘটনায় ছাত্রের বিরুদ্ধে মামলা
অভিযুক্ত মাহফুজ - সংগৃহীত ছবি

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) এক ছাত্রীর বড় বোনকে যৌন হয়রানির ঘটনায় একই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী মাহফুজুর রহমানের (২৫) বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে।

আজ বুধবার ওই নারী বাদী হয়ে নগরের খুলশী থানায় মামলাটি দায়ের করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেন খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহীনুজ্জামান। এর আগে এ ঘটনা ঘটে গতকাল মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে চট্টগ্রাম নগরের জিইসি মোড় এলাকায়।

জানা গেছে, অভিযুক্ত মাহফুজ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা বিভাগের ২০১৫-১৬ সেশনের শিক্ষার্থী। চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলায় তার বাড়ি।

ওসি শাহীনুজ্জামান বলেন, ‘চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মাহফুজের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেছেন।’

ভুক্তভোগী নারীর ছোট বোন চবির আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউটের ওই ছাত্রী বলেন, আমি আমার বড় বোনকে নিয়ে ব্যাংকের কাজে বের হয়েছিলাম। কাজ শেষে বিকেলে বাসায় ফেরার জন্য জিইসি মোড় এলাকায় দাঁড়াই। এমন সময় একটা ছেলে রাস্তার একপাশ পার হয়ে মাঝখানে দাঁড়িয়ে যায়। আমার বোনও একপাশ পার হয়ে তার পাশে যাওয়ামাত্রই আমার বোনের গায়ে হাত দেয়। এ সময় রাস্তায় আর কেউ ছিল না।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে ওই ছাত্রী বলেন, ছেলেটা যথেষ্ট দূরে ছিল। হুট করে ও আমার আপার সাথে ঘেঁষে আমার আপার স্পর্শকাতর জায়গায় হাত দেয়। আমার আপা যথেষ্ট ব্যথা পেয়েছে। সাথে সাথে ছেলেটা রোড পার হওয়ার জন্য হাঁটা শুরু করতেই আপা পেছন থেকে ওকে ধরে ফেলে। ঘটনাটি খুব দ্রুতই ঘটে।

তিনি আরও বলেন, পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক শিক্ষার্থীসহ তার বিশ্ববিদ্যালয়ের আইডি কার্ড দেখে জানা যায় তার নাম মাহফুজুর রহমান। সে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনিস্টিউটের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। পরবর্তীতে মানুষজনের জোরাজুরিতে আমরা তাকে ছেড়ে দিই। চবিতে এখন ভর্তি পরীক্ষা থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতে পারছি না। ভর্তি পরীক্ষা শেষে আমরা প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দেবো।