জাপানে ধেয়ে আসছে শক্তিশালী টাইফুন ‘হাজিবিস’

এবার জাপানে ধেয়ে আসছে শক্তিশালী টাইফুন হাজিবিস। এর প্রভাবে রাজধানী টোকিওতে গত ৬০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভারী বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ কারণে দেশটি ভয়াবহ এই দুর্যোগ মোকাবিলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছে। খবর জাপান টুডে ও গার্ডিয়ানের জাপানের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম এনএইচকে জানিয়েছে, শনিবারের নির্ধারিত ১২৮০টি ফ্লাইট এরই মধ্যে বাতিল করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেল থেকেই রাজধানী টোকিওর প্রধান দুইটি বিমানবন্দর থেকে সব অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। দ্রুতগামী বুলেট ট্রেনসহ বহু ট্রেনসেবা বাতিল করা হয়েছে।

দেশটির আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, এর কারণে প্রচণ্ড বাতাসের পাশাপাশি সমুদ্রে উঁচু ঢেউ ও উত্তরপূর্ব থেকে পশ্চিম জাপান পর্যন্ত রেকর্ড পরিমাণ বৃষ্টিপাত হতে পারে। টাইফুন হাজিবিসের তীব্রতার সঙ্গে ১৯৫৮ সালের টাইফুনের তুলনা করছেন জাপানের আবহাওয়াবিদরা। ঐ বছর টাইফুনে পূর্ব ও মধ্য জাপানে ১ হাজার দুইশোরও বেশি মানুষ নিহত হয়।

গত মাসে জাপানে আঘাত হানে আরেকটি শক্তিশালী টাইফুন ফাক্সাই। ঐ ঝড়ের কারণে রাজধানী ও আশেপাশের এলাকায় বিঘ্নিত হয় পরিবহন চলাচল। বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে ব্যাপক এলাকা। ঐ ঝড়ের ক্ষত কাটিয়ে ওঠার মধ্যেই এগিয়ে আসছে নতুন এই টাইফুন।
শুক্রবার জাপানের আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস বিভাগের প্রধান ইয়াসুসি কাজিহারা এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, প্রচণ্ড শক্তিশালী টাইফুনটি আগামীকাল টোকাই বা কান্তো অঞ্চলে আছড়ে পড়ার আশঙ্কা ক্রমশ বাড়ছে।

টাইফুনের কারণে ভূমিধস, বন্যা, নদীতে তীব্র স্রোত দেখা দিতে পারে। ঝুঁকিতে থাকা মানুষকে আগেভাগে সরে গিয়ে জীবন রক্ষার আহ্বান জানান তিনি। টাইফুনের আশঙ্কায় জাপানে অনুষ্ঠিত রাগবি বিশ্বকাপের শনিবার অনুষ্ঠিতব্য দুইটি ম্যাচ বাতিল করা হয়েছে।

ঃএনএইচকে