নারী পর্যটকদের জন্য কক্সবাজার সৈকতে বিশেষ জোন

নারী পর্যটকদের জন্য কক্সবাজার নারী পর্যটকদের জন্য কক্সবাজার সৈকতে বিশেষ জোন
সংগৃহীত ছবি

পর্যটন শিল্প নিয়ে সৃষ্ট উদ্ভুত পরিস্থিতির মধ্যে অবশেষে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে তৈরি করা হয়েছে নারীদের জন্য বিশেষ জোন। সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্টের বিজিবির উর্মি গেস্ট হাউজ থেকে সীগাল পয়েন্ট পর্যন্ত ১৫০ ফুট এলাকা নিয়ে হচ্ছে এই জোন।

আজ বুধবার সকাল সাড়ে ১১টায় আনুষ্ঠানিকভাবে জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ এই জোনের উদ্বোধন করেন। জেলা প্রশাসনের উন্মুক্ত মঞ্চে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। ফিতা কেটে এই জোনের উদ্বোধন করা হয়।

এ সময় জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম, ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন উদ্দিন এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা নূরুল আবচার উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ বলেন, কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত উপভোগ করতে এসে সাগরে নেমে গোসল করা পর্যটকদের বেড়ানোর বড় অংশ। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে নারী-পুরুষ এক সঙ্গে গোসল করতে গিয়ে বিব্রত বোধ করেন নারীরা। তারই প্রেক্ষিতে স্বস্তি নিয়ে গোসল করতে নারীদের জন্য এই বিশেষ জোন তৈরি করা হচ্ছে।

জেলা প্রশাসক আরও বলেন, এখন থেকে রক্ষণশীল নারী পর্যটকেরা এই পয়েন্টে নেমে স্বস্তিতে গোসল করতে পারববে। এর জন্য সব সময় বিশেষ নজর রাখবো আমরা।

নারীদের জন্য তৈরি করা এই জোনে নিরাপত্তার জন্য সার্বক্ষণিক নারী ট্যুরিস্ট পুলিশ সদস্য ও নারী বীচকর্মী নিয়োজিত থাকবেন। তারা গোসল করতে নেমে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা পাবেন। ইতোমধ্যে সৈকতের নির্ধারিত স্থান চিহ্নিত করে সাইনবোর্ড বসানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি কক্সবাজারে এক নারী সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কক্সবাজারে সমুদ্র সৈকতে নারী পর্যটকদের স্বস্তিতে বিচরণের বিষয়টি আলোচিত হয়ে উঠে। তারই প্রেক্ষিতে সৈকতে এই বিশেষ জোন তৈরি করা হয়েছে।