Home আন্তর্জাতিক পুরো মালয়েশিয়ায় জাকির নায়েকের ওপর নিষেধাজ্ঞা

পুরো মালয়েশিয়ায় জাকির নায়েকের ওপর নিষেধাজ্ঞা

- Advertisement -

মালয়েশিয়ায় পুলিশ জানায়, ‘জাতিগত সম্প্রীতি রক্ষায়’ জাকির নায়েকের প্রকাশ্যে বক্তৃতা দেয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ৩ আগস্ট দেশটির সংখ্যালঘুদের নিয়ে বিতর্কিত এক মন্তব্যের জেরে জাকির নায়েকের ওপর এমন নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

- Advertisement -

রয়্যাল মালয়েশিয়া পুলিশ কর্পোরেট কমিউনিকেশনের প্রধান আসমাওয়াতী আহমেদ জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে এই নিষেধাজ্ঞা জারির তথ্য নিশ্চিত করেছেন বলে দেশটির বার্তা সংস্থা দ্য স্টার জানায়।

দ্য স্টার’কে আসমাওয়াতী আহমেদ বলেছেন, হ্যাঁ, এই জাতীয় আদেশ (জাকির নায়েক যেন প্রকাশ্যে ভাষণ দিতে না পারে) সকল পুলিশ বাহিনীকে দেয়া হয়েছে, এবং এটি জাতীয় সুরক্ষা ও জাতিগত সম্প্রীতি রক্ষার স্বার্থে করা হয়েছে।

এর আগে দ্য স্টার তাদের প্রতিবেদনে জানায়, জাকির নায়েক দেশটির মেলাকা, জোহর, সেলানগর, পেনাং, কেদাহ, পারলিস ও সারাক রাজ্যে প্রকাশ্যে বক্তৃতা দিতে পারবেন না। এবার পুরো মালয়েশিয়ায় জাকির নায়েকের প্রকাশ্যে বক্তৃতা দেয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা এলো।

মালয়েশিয়ার কোটা বারু শহরে এক বক্তৃতায় জাকির নায়েক ভারতের মুসলমানদের সঙ্গে মালয়েশিয়ার হিন্দুদের অবস্থান তুলনা করেন। সেখানে তিনি বলেন, ভারতে মুসলমানরদের তুলনায় মালয়েশিয়ায় হিন্দুরা ১০০ শতাংশের বেশি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করছে।

এসময় জাকির আরও বলেন, মালয়েশিয়ার হিন্দুরা প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদের তুলনায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রতি বেশি আনুগত্য প্রকাশ করে। জাকিরের এসব বক্তব্যের জেরে শুরু হয় একের পর এক বিতর্কের ঝড়।

এনিয়ে মালয়েশিয়ার পার্লিসের পুলিশ প্রধান নুর মুশার সংবাদ সম্মেলনে জানান, জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে ১৫০টি অভিযোগ রয়েছে।

এছাড়া জাকিরের এসব মন্তব্যের জেরে দেশটির প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদ শুক্রবার বলেছেন, বিতর্কিত ধর্ম প্রচারক জাকির নায়েককে মালয়েশিয়ায় দেয়া স্থায়ী নাগরিকত্ব মর্যাদা বাতিল করা হতে পারে। তথ্য সূত্র: মালয় মেইল, দ্য স্টার, হিন্দুস্তান টাইমস, এনডিটিভি।

- Advertisement -