বাস টার্মিনালে গুলোতে ডেঙ্গু আতঙ্ক

রাজধানীসহ বিভিন্ন এলাকায় ডেঙ্গুর প্রকোপ।রাজধানীতে এ জ্বরে আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।ঢাকার অনেক এলাকার চেয়েই গাবতলীতে ও সায়দাবাদ মশার উৎপাত বেশি বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

বুধবার (৩১ জুলাই) সরেজমিনে দেখা যায়, গাবতলী বাস টার্মিনালে পশ্চিম পাশের কাউন্টারগুলোর পেছনে জমে আছে স্বচ্ছ পানি। পানি জমা বিভিন্ন হকারের ভ্যানগাড়ির ওপর, সিঁড়ির পাশে নিচু জায়গায়ও একই অবস্থা।

সোহাগ পরিবহনের গাবতলী কাউন্টার ইনচার্জ মো. সোলেমান বাংলানিউজকে বলেন, সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা প্রতিদিন সকালে এসে পরিষ্কার করে, তারপরও পানি জমে থাকে। তারা কোনোরকমে পরিষ্কার করে চলে যায়।

তিনি বলেন, টার্মিনালের হকাররা তাদের ভ্যানগাড়ি এখানে রাখছে। ওইসব ভ্যানগাড়িতে বৃষ্টির পানি জমা থাকছে। এ পানিতেই এডিস মশা জন্মাতে পারে। আর, তারা কামড়ালে আমাদের ডেঙ্গু জ্বর হতে পারে। ঈদের কারণে বাস কাউন্টারে ডেঙ্গু আতঙ্কের মধ্যে দিন পার কতে হচ্ছে।

গাবতলী বাস টার্মিনালে ফলের দোকানদার মো. ফারুক বাংলানিউজকে বলেন, আমি মাত্র ছয় দিন ধরে এখানে দোকান নিয়ে বসছি। এখানে অনেক দোকানদার আছে প্রতিদিন বসে, আবার দিন শেষে ভ্যান গাড়ি রেখে চলে যায়। টার্মিনালের পশ্চিম পাশে কয়েকজন দোকানদার অনেকদিন ধরেই দোকান খুলছে না। তাদের ভ্যানগাড়ি ঢেকে রাখা, তার ওপর পানি জমেছে। সেখান থেকে ডেঙ্গু মশা ছড়াতে পারে।

টার্মিনালের আরেক দোকানদার মো. গোলাম হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, অনেক দোকানদার দোকান বন্ধ করে দেশের বাড়ি চলে গেছে। অনেকদিন হয়ে গেলেও তারা ফিরছে না। আমি অনেকের কাছে ফোন করে দোকান সরানোর কথা বলেছি।