মহাখালী উড়ালসড়কে ধাক্কায় আহত যুবক সাবেক সেনাপ্রধানের ছেলে

মহাখালী উড়ালসড়কে ধাক্কায় আহত যুবক সাবেক সেনাপ্রধানের ছেলে
দুর্ঘটনা কবলিত গাড়িটি - সংগৃহীত ছবি

রাজধানীর মহাখালী উড়ালসড়কে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনার শিকার প্রাইভেটকারে সদ্য সাবেক সেনা প্রধান জেনারেল (অব.) আজিজ আহমেদের ছেলেও ছিলেন। এই দুর্ঘটনায় তিনি আহত হলেও তার দুই বন্ধু ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন।

গতকাল মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) ভোর ৪টা ৫৪ মিনিটে প্রাইভেটকারটি জাহাঙ্গীর গেট থেকে ইউটার্ন নিয়ে মহাখালী মোড়ের দিকে যাচ্ছিল। এসময় উড়ালসড়কের সঙ্গে ধাক্কা লেগে প্রাইভেটকারটি ছয়টি ডিগবাজি খায়।

কাফরুল থানায় গিয়ে দেখা যায়, মিতসুবিশি পাজেরো আউটল্যান্ডার গাড়িটি দুমড়ে-মুচড়ে গেছে। দুর্ঘটনার শিকার গাড়িটিকে থানার সামনে কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখা হয়েছে।

দুর্ঘটনাস্থলে থাকা সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যায়, ডিগবাজির সময় প্রাইভেটকারের ভেতর থেকে দুই জন ছিটকে বের হয়ে যান। এর কয়েক সেকেন্ড আগে একই জায়গায় অর্থাৎ রাওয়া ক্লাবের সামনে দিয়ে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা দ্রুত গতিতে চলে যায়। প্রাইভেটকারটির ধাক্কায় আগুনের ফুলকি উড়তে দেখা যায়।

পুলিশ জানিয়েছে, সেই গাড়িতে অন্তত সাতজন আরোহী ছিলেন। দুই জন ঘটনাস্থলেই মারা যায়। তারা হলেন, ফাহমিদ আহমেদ রায়হান (২০) ও উমার আয়মান (২০)। নিহত আয়মান কর্নেল (অব.) ওমর ফারুকের ছেলে। আর রায়হানের বাবার নাম ইলিয়াস আহমেদ। রায়হান বেসামরিক পরিবারের সন্তান। তার বাসা নিকুঞ্জে। সবাই তার বাসা থেকেই একত্রে বের হন। রায়হান সবাইকে বাসায় পৌঁছে দিতে গাড়ি নিয়ে বের হয়েছিলেন। নিহত দুজনের একজন চালকের আসনে ছিলেন।

এই ঘটনায় আহত দুজন হলেন-ইশরাক আহমেদ স্বাধীন (১৯) ও গাড়ির চালক মহসিন (২২)। এদের মধ্যে স্বাধীন সদ্য অবসরে যাওয়া সেনা প্রধান জেনারেল (অব.) আজিজ আহমেদের ছেলে। তারা ঢাকা সিএমএইচে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, গাড়ির গতি চালকের নিয়ন্ত্রণে ছিল না। এ কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে। গাড়ির মূল ড্রাইভার মহসিনকে পেছনে বসিয়ে তাদের মধ্যে কেউ একজন গাড়ি চালাচ্ছিলেন বলেও জানায় পুলিশ।

সন্ধ্যায় ইউনিভার্সাল হাসপাতালের কর্মকর্তা মাসুদুল হাসান জানান, ঘটনার পরপরই ভোরে স্থানীয়রা আহতদের ভ্যানে করে তাদের হাসপাতালে নিয়ে যান। তাদের মধ্যে দুই জন ছিল মৃত। সকাল ৭টার দিকে নিহতদের পরিবারের সদস্যরা মরদেহ নিয়ে যান।

কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, দুর্ঘটনার পর স্থানীয়রা দ্রুত তাদের উদ্ধার করে মহাখালীতে ইউনিভার্সাল মেডিকেল কলেজ (সাবেক আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতাল) ভর্তি করেন। পরে পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর সকালে ঢাকা সিএমএইচে নিয়ে যাওয়া হয়। তারা সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।