মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগ : সমঝোতা স্মারক সই ১৯ ডিসেম্বর

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগ সমঝোতা স্মারক সই ১৯ ডিসেম্বর
ফাইল ছবি

বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগে সমঝোতা স্মারক বা এমওইউ সইয়ের জন্য প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ শিগগিরই মালয়েশিয়ায় যাচ্ছেন।

গতকাল রোববার প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের নির্ভরযোগ্য সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে। জানা গেছে, সমঝোতা স্মারক সইয়ের জন্য মন্ত্রী ইমরান আহমদ ১৮ ডিসেম্বর রাতে কুয়ালালামপুর যাবেন।

এর আগে, ১০ ডিসেম্বর রাতে মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী এম সারাভানান আনুষ্ঠানিক এক চিঠিতে বাংলাদেশের প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদকে আমন্ত্রণ জানান। মন্ত্রীকে চলতি মাসের ১৬ বা ১৭ তারিখে সমঝোতা স্মারক সইয়ের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়।

বাংলাদেশে ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস ও ১৮ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবসের অনুষ্ঠান রয়েছে। তাই মালয়েশিয়ার নির্ধারিত দিনে বাংলাদেশের মন্ত্রীসহ প্রতিনিধিদের সেদেশে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। অন্যদিকে, ১৯ ডিসেম্বরের পর দেশে থাকবেন না মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী এম সারাভানান।

এমন বাস্তবতায় ১৮ ডিসেম্বর অভিবাসী দিবসের অনুষ্ঠান শেষে রাতেই মালয়েশিয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হবেন মন্ত্রী ইমরান আহমদ। পরদিন অর্থাৎ ১৯ ডিসেম্বর মালয়েশিয়ায় সই হতে যাচ্ছে বহু প্রতীক্ষিত ও আলোচিত শ্রমবাজার সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক।

জানা গেছে, আগের চেয়ে এবারের সমঝোতা স্মারকে বেশ কিছু বিষয়ে পরিবর্তন আসছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য- জিটুজি প্লাস পদ্ধতি উল্লেখ থাকছে না; যুক্ত হচ্ছে মালয়েশিয়ার রিক্রুটিং এজেন্সি; থাকছে কর্মীদের বাধ্যতামূলক বিমা; কর্মীদের দেশে ফেরার ব্যবস্থা ও খরচ বহন করবে নিয়োগদাতা; চুক্তি মেয়াদে কর্মীদের দায়িত্ব নিতে হবে মালয়েশিয়ার রিক্রুটিং এজেন্সিকেও; বয়স নির্ধারণ করা হয়েছে ১৮ থেকে ৪৫ বছর পর্যন্ত। কর্মীদের মালয়েশিয়া যেতে অভিবাসন ব্যয় বা খরচ কতো হবে, তা জানা যাবে স্মারক সইয়ের পর।