মৃত্যুর সঙ্গে ৪ দিন লড়াই করে স্কুল শিক্ষকা জ্যোতি হেরে গেলেন

মৃত্যুর সঙ্গে ৪ দিন লড়াই করে স্কুল শিক্ষকা জ্যোতি হেরে গেলেন
স্কুল শিক্ষকা ফাতেমা তুজ জোহরা জ্যোতি - সংগৃহীত ছবি

মারা গেছেন চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত স্কুল শিক্ষকা। গতকাল রবিবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে মারা যান ফাতেমা তুজ জোহরা জ্যোতি নামে এই শিক্ষকা। গুরুতর আহত হয়ে তিনি চারদিন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।

শাহরাস্তি উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম জানান, গত ২৫ নভেম্বর বাসা থেকে কর্মস্থলে যাবার পথে অটোরিকশায় দুর্ঘটনার শিকার হন জ্যোতি। পরে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। দুর্ঘটনায় তিনি মাথাসহ শরীরের বিভিন্নস্থানে গুরুতর আঘাত পান। জ্যাতি শাহরাস্তি পৌরসভার নাওড়া সরকারি প্রাইমারি স্কুলের সহকারী শিক্ষকা ছিলেন।

পাঁচ বছর আগে ফাতেমা তুজ জোহরা জ্যোতি চাকরিতে যোগ দেন। শিক্ষার্থী এবং সহকর্মীদের কাছে বেশ প্রাণবন্ত এবং হাসিখুশি ছিলেন শিক্ষকা ফাতেমা তুজ জোহরা জ্যোতি। তার কর্মস্থল ও পরিবারের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে তার অকাল মৃত্যুতে।

জ্যোতির পিতা জহির জানান, জ্যোতি বরাবরই মেধাবী ছিল, সে চাঁদপুর মাতৃপীঠ সরকারি বিদ্যালয় থেকে এসএসসি চাঁদপুর মহিলা সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ থেকে ইংরেজিতে প্রথম শ্রেণীতে অনার্স মাস্টার্স পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন।

১০ বছর পূর্বে শাহরাস্তি উপজেলার বিজয়পুর গ্রামের বাসিন্ধা ঢাকার আমেরিকান ইউনিভার্সিটি প্রশাসনিক কর্মকর্তা কবির হোসেনের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন জ্যোতি। বর্তমানে ওই দম্পতি তারিমা আনজুম নামের (৫) বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

মৃত্যুকালে স্বামী, এক শিশু সন্তান ছাড়াও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের রেখে গেছেন ফাতেমা তুজ জোহরা জ্যোতি। আজ সোমবার সকালে জানাজা শেষে চাঁদপুরে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয় তাকে।