যেসব বিষয় মাথায় রেখে পাকা আম কিনলে কখনো ঠকবেন না

অনেক গুণের পাকা আম

বাজারে চলে এসেছে পাকা আম। তবে অনেক সময় বাজারে কাঁচা আম ফরমালিন দিয়ে পাকিয়ে তা বিক্রি করা হয়ে থাকে। যা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর। আবার দাম দিয়ে পাকা দেখে কাঁচা আম কিনে এতে অনেকেই প্রতারিত হন।

তাই আম কেনার আগে আমগুলো গাছ পাকা কিনা তা পরীক্ষা করে দেখে নেওয়া উচিত। জেনে নিন আম কেনার সময় যেসব বিষয় মাথায় রেখে আম কিনলে মোটেও ঠকবেন না!

>> আমের ঘ্রাণ:

শুধু আম নয়, অন্য যেকোনও ফল টাটকা কিনা বুঝতে ভরসা রাখুন নিজের ঘ্রাণশক্তির উপর। যদিও আমের একেক জাত অনুযায়ী বদলে যায় সুগন্ধ। আমের বোঁটার কাছ থেকে যদি ফলের মিষ্টি গন্ধ বের হয়; তাহলে সেই আম কিনুন। খুব কড়া, টক বা বাজে গন্ধ বের হলে সেই আম কিনা থেকে বিরত থাকুন।

>> নরম আম:

আম কেনার সময় আমের গায়ে আঙুলের মাথা দিয়ে হালকা টিপে দেখুন। পাকা আম স্বভাবতই নরম হয়ে থাকে। তবে আঙুল দিয়ে টিপে দেখার সময় যদি ওই স্থানটি গর্ত হয়ে যায়; তাহলে সেই আম কিনবেন না। সপ্তাহখানেক বাড়িতে রেখে যদি আম খেতে চান; তাহলে একটু শক্ত দেখেই আম কিনুন। বেশি পাকা আম কিনলে তা বেশিদিন ঘরে রেখে খেতে পারবেন না।

>> আমের গড়ন:

আম দেখে পছন্দ না হলে, কেউই দাম দিয়ে তা কেনে না। তাই আম কেনার সময় দাগহীন ও সুন্দর গড়নের আম দেখে কিনুন। খোসা কুঁচকে গিয়েছে এমন আম কিনবেন না। লাল, সোনালি হলুদ, সবুজ, গেরুয়া, কমলা যেকোনো রঙের আম যদি দেখতে সুন্দর লাগে তা কিনতে পারেন।

>> পাকা আম:

বেশিরভাগ আম বিক্রেতাই কাঁচা আম কিনে কার্বাইড দিয়ে পাকিয়ে তা বিক্রি করেন। তাই আম কেনার সময় একটু বুঝে শুনে কেনা উচিত। বিভিন্ন সুপারমার্কেটে টাটকা পাকা আম পাবেন। এ ছাড়াও অনেক বিক্রেতা একদম গাছ পাকা আম বিক্রি করেন। তবে আম যেখান থেকেই কিনেন না কেন, অবশ্যই এর ঘ্রাণ নিয়ে তবেই কিনুন।