২০ ডিসেম্বরই জাতীয় নির্বাচন?

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল আজ সন্ধ্যায় ঘোষণা করবেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা। এতে ২০ ও ২৩ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারিত হতে পারে। তবে ২০ ডিসেম্বরই ভোটগ্রহণের দিন হিসেবে ইসির বিবেচনায় প্রাধান্য পাচ্ছে। নির্বাচন কমিশনের একাধিক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তফসিল ঘোষণা উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন। তিনি নির্বাচন নিয়ে কমিশনের প্রস্তুতি ও সিদ্ধান্তগুলো জানাবেন। পাশাপাশি তফসিল ঘোষণা করবেন।

তফসিল ঘোষণার পর শুক্রবার থেকে সারা দেশে মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরু হবে। প্রথমবারের মতো অনলাইনে মনোনয়নপত্র দাখিলের সুযোগ পাচ্ছেন প্রার্থীরা। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২-এ (আরপিও) ঋণখেলাপিসংক্রান্ত বিধিতে ত্রুটি রেখেই এ তফসিল ঘোষণা করা হচ্ছে।

জানা গেছে, আজ সকালেই সিইসির নেতৃত্বে কমিশনসভায় একাদশ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমা, যাচাই-বাছাই, প্রত্যাহারের দিনক্ষণসহ তফসিলের বিস্তারিত চূড়ান্ত করা হবে। ৩১ অক্টোবর থেকে নির্বাচনের ক্ষণ গণনা শুরু হয়েছে। ২৮ জানুয়ারি পর্যন্ত বর্তমান সংসদের মেয়াদ রয়েছে। ওই সময়ের মধ্যে নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা আছে।

সেই হিসাবে ডিসেম্বরের ২০ তারিখের মধ্যেই নির্বাচন করার জন্য যাবতীয় প্রস্তুতির বেশিরভাগই সম্পন্ন করেছেন ইসি। সাধারণত ডিসেম্বর মাসে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোতে বার্ষিক পরীক্ষা থাকে। বার্ষিক পরীক্ষা যেন ১০ ডিসেম্বরের মধ্যেই শেষ করা হয়, সে জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করেছে ইসি। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে সেই নির্দেশনা সব স্কুলে পাঠিয়ে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

জাতীয় নির্বাচনের ক্ষেত্রে আবহাওয়াও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনার বিষয়। সাধারণত জানুয়ারি থেকে ফেব্রুয়ারি সারা দেশে তীব্র শীত থাকে। শৈত্যপ্রবাহও দেখা দেয়। নির্বাচন কমিশন ইতিমধ্যে আবহাওয়া অধিদফতরে খোঁজ নিয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, ডিসেম্বরের মাঝামাঝি আবহাওয়া ভালো থাকবে। এসব বিবেচনায় ২০ ডিসেম্বরই নির্বাচন করতে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে ইসিতে।

তবে ধারণা করা হচ্ছে, নির্বাচন কমিশনারদের মধ্যে একজন ডিসেম্বরে নির্বাচন করা নিয়ে দ্বিমত পোষণ করতে পারেন। তবে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ অন্যরা ডিসেম্বরের মাঝামাঝি নির্বাচন করতে একমত।

এদিকে ইসির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, আজ সন্ধ্যা ৭টায় জাতির উদ্দেশ দেয়া ভাষণে সিইসি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবেন। বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতার একযোগে এ ভাষণ প্রচার করবে। বেসরকারি চ্যানেলগুলোও বাংলাদেশ টেলিভিশন ও রেডিও থেকে ফিড নিয়ে প্রচার করতে পারবে।

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/কেএস