যমুনা ফিউচার পার্কে রেস্টুরেন্টকে ২৮ লাখ টাকা জরিমানা

রাজধানীর যমুনা ফিউচার পার্কের ফুডকোর্টে টানা ৯ ঘন্টা ভেজালবিরোধী অভিযান চালিয়ে ১১টি রেস্টুরেন্টকে ২৮ লাখ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার (৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুর দেড়টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত ভেজালবিরোধী এই অভিযান চালানো হয়। র‍্যাব-১ এর সদস্যদের সহযোগিতায় র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম এই অভিযানে নেতৃত্ব দেন।

অভিযানে মোগল মহল রেস্টুরেন্টকে ৪ লাখ টাকা, ইন্ডিয়ান কিচেন রেস্টুরেন্টকে ১ লাখ টাকা, আরসালান রেস্টুরেন্টকে ২ লাখ, ডোমেস্টিক ইন্ডিয়ান স্পাইসিকে ৬ লাখ, ফ্রেন্ড ফাস্ট ফুড এন্ড রেস্টুরেন্টকে ২ লাখ টাকা, ইন্ডিয়ান স্পাইসি কিং কে ৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা, পপুলার তাইওয়ান রেস্টুরেন্ট কে ২ লাখ টাকা, স্টাসি ক্যাফে কে ১ লাখ টাকা, দি গ্রেড কাবাব ফেক্টরিকে ২ লাখ টাকা এবং কিং বার্গার ও কিং ফিস রেস্টুরেন্টকে দেড় লাখ করে তিন লাখসহ মোট ২৮ লাখ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এসময় ১১টি প্রতিষ্ঠানকে ১৩টিটি মামলা ও ডোমেস্টিক ইন্ডিয়ান স্পাইসি, কিং ফিস, কিং বার্গারকে সিলগালা করা হয়।

অভিযান শেষে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম বলেন, র‍্যান-১ ও ডিএনসিসির সহায়তায় অভিজাত মার্কেট যমুনা ফিউচার পার্কের ফুডকোর্টে অভিযান পরিচালনা করেছি। কিন্তু যমুনা পার্ক অভিজাত মার্কেট হিসেবে রেস্টুরেন্টগুলো যে রকম স্বাস্থ্যকর থাকার কথা তেমনটি পাওয়া যায় নি। কোথাও অপরিচ্ছন্ন পরিবেশ, কোথাও পচা ও বাসি খাবার আবার কোথাও পোড়া তেলসহ নানান অনিয়মের প্রমাণ পাওয়া গেছে। এসব অপরাধে ১১টি প্রতিষ্ঠানকে ২৮ লাখ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তিনটি প্রতিষ্ঠানকে সিলগালা করা হয়েছে এবং খাদ্যে ভেজালের অপরাধে ১৩ টি মামলা করা হয়েছে। 

তিনি আরও বলেন, এখানে অভিযান চালাতে গিয়ে দেখলাম একেবারেই অদায়িত্বশীলতার সঙ্গে চলছে রেস্টুরেন্ট গুলো। কিন্তু কর্তৃপক্ষ চাইলেই এগুলো ঠেকাতে পারতেন। কিন্তু তা তারা করছেন না। তাই আমরা আইন প্রয়োগের পাশাপাশি তাদেরকে বুঝিয়েছি এবং যারা ভালো করছে তাদেরকে ধন্যবাদ দিয়ে অনুপ্রাণিত করছি। 

এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/কেএস