ভোলায় যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে হামলা, আহত ৫০

ছবি: সংগৃহীত

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে হামলা-ভাংচুর ও চারটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে যুবদলের অন্তত ৫০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় চরফ্যাশন বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দীন আলমের বাসভবনে আয়োজিত যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

চরফ্যাশন উপজেলা যুবদল সভাপতি আশরাফুল ইসলাম দীপু জানিয়েছেন, ‘সাবেক এমপি নাজিম উদ্দিন আলমের বাসায় সকাল ১০টার দিকে যুবদলের ৪৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা চলছিল। এসময় যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ সরকার দলীয় লোকজন তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায় এবং এমপি নাজিম উদ্দিনের বাসায় ভাংচুর চালায়। এমনকি পুলিশের কাছ থেকে নেতাকর্মীদের ছিনিয়ে নিয়েও পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করা হয়।’

তিনি জানান, হামলায় আহতরা হলেন- উপজেলা যুবদলের প্রচার সম্পাদক মিলন, উপজেলা যুবদল নেতা ফজলে রাব্বি, যুবদলের সহ তথ্য গবেষণা সম্পাদক জহির উদ্দিন সাদ্দাম সাইমুন, উপজেলা যুবদলের নেতা সৈকত মালতিয়া, উপজেলা মৎস্য দলের সভাপতি সোহেল খান, উপজেলা শ্রমিক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হানিফ, ওমরপুর ইউনিয়ন যুবদলের নেতা বেল্লাল মোস্তান, আছলামপুর যুবদলের সাংগঠনিক জাকির, মনপুরা উপজেলা যুবদলের সহ-সভাপতি মেহেদী ফরাজি, নুরাবাদ যুবদলের নেতা বাবুল পাটওয়ারি, আমিনাবাদের যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মোবারক উল্লাহ প্রমুখ। তারা গ্রেপ্তারের ভয়ে বেসরকারি ক্লিনিকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আহত অনেকে বর্তমানে ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এর মধ্যে ২ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের বরিশাল সেবাচিমে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনা নিয়ে চরফ্যাশন থানার ওসি মোরাদ হোসেন জানান, ‘সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এখনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’