মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনের অঘোষিত ‘নেতা’ যিনি

Muriel Bowser

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে লাগাতার বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনের কোন নেতা না থাকলেও এই দুর্বার আন্দোলনের মধ্য দিয়ে অঘোষিত ‘নেতা’ হিসেবে আবির্ভূত হয়েছেন ওয়াশিংটন ডিসির মেয়র মুরিয়েল বাউসার। গত সোমবার শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ চলাকালে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মন্ত্রীসহ নিরাপত্তা বাহিনী বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে বর্বর আচরণ করেন।

হোয়াইট হাউজের সামনের সড়ক থেকে বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দলবলসহ পায়ে হেঁটে ট্রাম্প বিক্ষোভে ক্ষতিগ্রস্ত চার্চের সামনে গিয়ে ছবিতে পোজ দেন। এ ঘটনায় বিবেকসম্পন্ন মানুষের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।

এসব বিতর্ককে এক পাশে রেখে বিক্ষোভের চেতনাকে সমুজ্জ্বল রাখতে হোয়াইট হাউজে যাতায়াতের লাফায়েত স্কোয়ারের পার্শ্ববর্তী ১৬ স্ট্রিটের কয়েক ব্লক জুড়ে হলুদ অক্ষরে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ লেখা হয়েছে। ওই স্কোয়ারের নামকরণ করা হয় ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার প্লাজা’ হিসেবে। ট্রাম্পের স্বৈরাচারি মনোভাবের নিন্দা এবং প্রতিবাদে এ দুটি কাজ করেন মেয়র মুরিয়েল বাউসার।

এর ফলে গত শনিবার সেখানে ৫ লক্ষাধিক লোকের সমাগম ঘটেছিল ফ্লয়েড হত্যার বিচার ও বর্ণবাদ নির্মূলের স্লোগানে। গতকাল রবিবারও লাখো জনতার সমাগম ঘটে সেখানে। এমন ঘটনার মধ্য দিয়ে সারা আমেরিকায় চলমান আন্দোলনের অঘোষিত নেতায় পরিণত হয়েছেন কৃষ্ণাঙ্গ আমেরিকান মেয়র মুরিয়েল বাউসার। ডেমক্র্যাট মেয়র মুরিয়েলকে অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে অনন্য এক সাহসী ব্যক্তিত্ব হিসেবে অভিহিত করা হয় সমাবেশ থেকে।