বিশ্বকাপের আগে হোয়াইটওয়াশ পাকিস্তান

বাবর আজম ও সরফরাজ আহমেদের লড়াকু ইনিংস ব্যর্থ করে দুরন্ত জয় ইংল্যান্ডের। সিরিজ জয় আগেই নিশ্চিত করেছিল ব্রিটিশরা। নিয়মরক্ষার শেষ ম্যাচেও পাকিস্তানকে ৫৪ রানে হারিয়ে দেয় ইয়ন মরগ্যানরা। যার কারণে হোয়াইটওয়াশ হলো পাকিস্তান।

রবিবার পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে হেডিংলেতে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে ইংল্যান্ড। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ৩৫১ রান করে তারা। জো রুট ও অধিনায়ক মর্গ্যান হাফসেঞ্চুরি করেন। শাহীন শাহ আফ্রিদি ও ইমাদ ওয়াসিম নজরকাড়া বোলিং করেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তান ৪৬.৫ ওভারে ২৯৭ রানে অলআউট হয়ে যায়। বাবর ও সরফরাজের হাফসেঞ্চুরি ব্যর্থ হয়। সরফরাজ ব্যক্তিগত শতরান হাতছাড়া করেন। ক্রিস ওকস একাই পাক ব্যাটিং লাইনআপের মেরুদণ্ড ভেঙে দেন।

মঈন আলী ছাড়া ইংল্যান্ডের প্রায় সব ব্যাটসম্যানরাই দলের ইনিংসে অল্প-বিস্তর অবদান রাখেন। দুই ওপেনার ভিন্স ও বেয়ারস্টো যথাক্রমে ৩৩ ও ৩২ রান করে আউট হন। জো রুট ৮৪ ও মরগ্যান ৭৬ রান করেন। বাটলার ৩৪, স্টোকস ২১, টম কুরান অপরাজিত ২৯ রান করেন।

আফ্রিদি ১০ ওভারে ৮২ রান খরচ করলেও ৪টি উইকেট নেন। ইমাদ ওয়াসিম নেন ৫৩ রানে ৩ উইকেট। একটি করে উইকেট পেয়েছেন হাসান আলী ও মোহাম্মদ হাসনাইন।

পাকিস্তানের হয়ে বাবর আজম ৮০ ও সরফরাজ ৯৭ রান করেন। সরফরাজ দুর্ভাগ্যজনক রান-আউট হয়ে ক্রিজ ছাড়েন। বাকিরা তেমন একটা স্কোর রাখতে পারেননি। ক্রিস ওকস ৫৪ রানের বিনিময়ে একাই ৫টি উইকেট দখল করেন। ২টি উইকেট নেন আদিল রশীদ৷ একটি উইকেট উইলির। ম্যাচের সেরা হন ওকস। সিরিজ সেরা জ্যাসন রয়। এই জয়ের সুবাদে ইংল্যান্ড ৫ ম্যাচের একদিনের সিরিজ জিতে নিয়েছে ৪-০ ব্যবধানে। বৃষ্টির জন্য একটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়।