বালিকান্দিতে যুবককে কুপিয়ে হত্যা

Hacked to death

মৌলভীবাজারে রাজন মিয়া (৩৩) নামের এক যুবককে তুলে নিয়ে হত্যার পর হাসপাতালে লাশ ফেলে গেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত যুবক সদর উপজেলার বুদ্ধিমন্তপুর এলাকার আশিক মিয়ার ছেলে। রাজনকে সদর উপজেলার বালিকান্দি খেয়াঘাট এলাকা থেকে তুলে নিয়ে হত্যা করা হয়।

পুলিশ ও পরিবার জানায়, মঙ্গলবার সকালে রাজন মিয়া নিজ বাড়ী উপজেলার বুদ্ধিমন্তপুর গ্রামে যাবার উদ্দ্যেশে শহরের সুলতানপুর এলাকার বাসা থেকে বের হন। বাড়ী যাবার পথে শহরতলীর বালিকান্দি কেয়াঘাট এলাকা থেকে তাকে অপহরণ করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এরপর রাজনের লাশ মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায় তারা। পরে খবর পেয়ে হাসপাতালে যায় পুলিশ। রাজনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যাহাসপাতালে মর্গে রাখা হয়েছে।

মৌলভীবাজার মডেল থানার পুলিশ পরিদশক ( তদন্ত) পরিমল দেব জানান, ঘটনার পেছনে কারা আছে তা জানতে চেষ্টা করছে পুলিশ। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে শহরতলীর বালিকান্দি কেয়াঘাট থেকে রাজনকে অপহরণ করে নিয়ে ধারালো আস্ত্রদিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহত রাজন শহরের হিলালপুরে এলাকার পীর আজাদের ছোট ভাই রুবেল হত্যার এজহারভুক্ত ৮ নং আসামী। সে এই মামলায় জামিনে ছিল।