বাংলাদেশের প্রেমিকরা প্রেমের ক্ষেত্রে মেয়েদের চেয়ে বহুগুনে সলিড : আসিফ আকবর

বাংলাদেশের প্রেমিকরা প্রেমের ক্ষেত্রে মেয়েদের চেয়ে বহুগুনে সলিড : আসিফ আকবর
সংগৃহীত ছবি

ভারতের সাগর পারের তামিলনাড়ু থেকে প্রেমের টানে বরিশালে আসেন নেটওয়ার্কিং ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করা নৃত্যশিল্পী প্রেমকান্ত। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার ড্যান্স দেখে সরকারি বরিশাল মহিলা কলেজের এক ছাত্রী প্রেমে পড়েন। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক চলছে তিন বছর। এক পর্যায়ে দুই পরিবারের মধ্যে তৈরি হয় ভাল সম্পর্ক।

তামিলনাড়ু থেকে গত ২৪ জুলাই প্রেমিকাকে একনজর দেখার জন্য বাংলাদেশের বরিশাল নগরীতে আসেন প্রেমিক প্রেমকান্ত। ২৫ জুলাই বরিশালের সরকারি মহিলা কলেজে তাদের দেখা হয়। এরপর তারা দুপুরের এক সঙ্গে খাবার গ্রহণ করেন। একদিন পর তিনি জানতে পারেন- এক যুবকের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক আছে তার প্রেমিকার। এরপর হঠাৎ যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় তার প্রেমিকা।

তবে প্রেমিকার ‘দেশি প্রেমিকের’ হাতে মার খেতে হয়েছে তাকে। পরে বরিশাল মেট্রোপলিটনের এয়ারপোর্ট থানা পুলিশ বাসের ভাড়া দিয়ে তাকে ঢাকায় ভারতীয় দূতাবাসে পাঠানোর ব্যবস্থা করলেও তিনি বরিশালেই থেকে যান। প্রেমের ব্যাপারে সেনসিটিভ গায়ক আসিফ আকবর তাঁর ফেসবুকে প্রেমকাতুরে প্রেমকান্তকে নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন। আমাদের পাঠকদের জন্য হুবুহু তুলে ধরা হলঃ

প্রেমের ব্যাপারে আমি খুব সেনসিটিভ। যে কোন সলিড প্রেম দেখলেই পাশে থাকা আমার অভ্যাস। যাদের প্রেমের পক্ষে কাজ করি তাদের সংসার টেকা না টেকার দায়িত্ব আমার না। টিকে গেলে খুশী হই, ভেঙ্গে গেলে কষ্ট পাই। বহুদিন ধরে দেখছি বাংলাদেশী প্রেমিকদের টানে ভিনদেশী মেয়েরা ছুটে আসছেন। ভালবাসার ব্যাপার তো! ভালই লাগছিলো। বাংলাদেশের ছেলেরা বারবার প্রমান করেছে প্রেমের প্রতি তারা বিশ্বস্ত। স্যালুট সফল প্রেমিকগন।

তবে মেয়েদের ভালবাসার ব্যাপারে আমার একটা ছোট অবজার্ভেশন আছে। তারা প্রেমও করবে, আবার অবুজ প্রেমিকের সক্ষমতা নিয়ে খানিক পরেই দ্বিতীয় অপশনের উপস্থিতি জানান দেবে। পাত্র রেডী, ফ্যামিলি থেকে চাপ আছে, হাতে সময় কম, এখন তুমি কি করবে ! সবাইতো আর আমার মত বীর প্রেমিক না, কেউ কেউ অসহায় প্রেমিকও হয়। ভালবাসার হিসাব নিকাশে খেই হারিয়ে ব্যর্থ প্রেমিকের খাতায় নাম লিখিয়ে বিরহবিধুর কষ্ট নিয়ে বেঁচে থাকে এই অভাগাগুলো।

প্রেমকান্ত নামের ছেলেটা ভারতের তামিলনাড়ু থেকে বৈধ পথেই বরিশালে এসেছে প্রেমের টানে। এসেই মেয়েটার লোকাল- ফরেন প্রেমিক কোটায় অপমানিত হয়েছে। বাংলাদেশী প্রেমিকরা বিদেশী মেয়েদের সাথে সুন্দর সংসার করছে, অথচ তিন বছরের চলমান প্রেমে প্রেমকান্ত ধোঁকা খেয়ে গেল। জল যতই ঘোলা হউক না কেন, আমার দাবী প্রেমকান্তকে সম্মানজনকভাবে তার দেশে পাঠিয়ে দেয়া হোক।

একজন সলিড প্রেমিকের পক্ষ নেয়া পুরুষ হিসেবে আমার দায়িত্ব। সরি প্রেমকান্ত, দেশে ফিরে যাও। আর মনে রেখো- বাংলাদেশের প্রেমিকরা মেয়েদের চেয়েও বহুগুনে সলিড প্রেমের ক্ষেত্রে। তুমি ভুল করেছো সেটা সমস্যা না, ভবিষ্যতে সতর্ক থাকবে এটাই আশা করি।

তেলের দাম ব্যাপার নাহ, সব প্রেমকাতুরে প্রেমকান্তের দলের জন্য ভালবাসা অবিরাম…

উল্লেখ্য যে, সদা স্পষ্টভাষী আসিফ আকবর বাংলাদেশের অন্যতম সেরা পুরুষ কণ্ঠশিল্পী যার জনপ্রিয়তা এবং আধিপত্য এখন পর্যন্ত সমানভাবে বিরাজমান। আসিফের প্রথম অ্যালবাম ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’ বাংলাদেশের ইতিহাসে ব্যবসা সফল এ্যালবামসহ ব্যাপক জনপ্রিয় হয় এবং ভারতে খুব জনপ্রিয় হয়।