খালেদা জিয়া না থাকায় ঝিমিয়ে পড়েছে বিএনপি

দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এক বছর ধরে তিনি কারাবন্দি। তাই দলের কার্যক্রম ঝিমিয়ে পড়েছে বলে মনে করছেন বিএনপির নেতারা। তারা বলছেন, খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে দলের বড় ধরনের ক্ষতি হয়েছে।  

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাজীবনের এক বছর পেরিয়ে গেছে। তাঁর মুক্তির দাবিতে কিছু দিন মানববন্ধন, অবস্থান কর্মসূচির মত নমনীয় কর্মসূচি পালন করে দলটি। কিন্তু একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তোড়জোড় শুরু হলে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবির চেয়ে নির্বাচনি ব্যবস্থার সংস্কারের দাবিতে বেশি সোচ্চার হয় দলটি।

এরই ধারাবাহিকতায় কোনো দাবি দাওয়া পূরণ ছাড়াই ৩০শে ডিসেম্বরের নির্বাচনে অংশ নেয় বিএনপি। নজিরবিহীন ভরাডুবির পর দলের মধ্যে চলছে নানা বিশ্লেষণ।

চেয়ারপারসনের অনুপস্থিতির কারণে বিএনপি ভুগছে বলে মনে করেন দলের যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। তিনি বলেন, দলের মধ্যে অন্য যত উত্তাপই থাকুক না কেনো, তার অনুপস্থিতির ব্যাপারটি আমাদের কার্যক্রমে বাধা সৃষ্টি করছে। আর এটা বুঝেই সরকার বিচার বিভাগকে প্রভাবিত করে তাকে আরও অনির্দিষ্ট কালের জন্য কারাগারের রাখার ব্যবস্থা করেছে।’

খালেদা জিয়া কারাগারে থাকায় দলের পাশাপাশি গণতন্ত্রের ক্ষতি হয়েছে বলে মনে করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে বাইরে রেখে, জনগণকে বাইরে রেখে ক্ষমতা দখলের যে প্রক্রিয়া তার অংশ হিসেবেই তাকে জেলে রাখা হয়েছে। এটি শুধু বিএনপির জন্য নয়, জাতির গণতন্ত্রের জন্যও একটি হুমকি স্বরুপ।’

নানা প্রতিকূলতার মধ্যেও আগামী দিনের লড়াইয়ের জন্য বিএনপির মনোবল অটুট থাকার আশা নেতাদের। 

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/কেএস