বাংলাদেশি তরুণের মুখে পেট্রোল ঢেলে হত্যা করলো বিএসএফ!

ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের বিরুদ্ধে বাংলাদেশি এক যুবককে পিটিয়ে মুখমণ্ডলে পেট্রল ঢেলে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।
গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাতে সাতক্ষীরার কুশখালী সীমান্তের ওপারে ভারতের দুদলি একালায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত কবিরুল ইসলাম (৩২) সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ছয়ঘরিয়া গ্রামের আজিজ মোল্লার ছেলে।

তবে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) ৩৩ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল গোলাম মহিউদ্দিন খন্দকার জানান, তারা ঘটনা শুনেছেন। কিন্তু বিএসএফ যে এ বিষয়ে দায়ী, এমন তথ্য তাদের কাছে নেই। খোঁজখবর নিয়ে পরে বিস্তারিত জানানো হবে।

নিহত কবিরুলের পরিবার ও স্থানীয় সূত্র জানায়, চা-পাতা ও চিনিসহ ভারতীয় কিছু মালামালের জন্য রাতে ভারতের দুদলিতে যান কবিরুল। পরে বিএসএফ তাকে ধরে পিটিয়ে ও নির্যাতন করে মুখমণ্ডলে পেট্রোল ঢেলে বাংলাদেশের কুশখালি সীমান্তের ছয়ঘরিয়া এলাকায় ফেলে রেখে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সাইফুল্লাহ আল কাফি বলেন, নিহত কবিরুলের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এছাড়া দাহ্য পদার্থের মতো কিছুতে তার মুখমণ্ডল পুড়ে গেছে।

কুশখালি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শ্যামল জানান, কবিরুল চা-পাতা আনতে ভারতে গিয়েছিল। বিএসএফ তাকে নির্মমভাবে পিটিয়ে আহত করে ও পরে মুখে পেট্রোল ঢেলে দেয়।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, তার দেহে নির্যাতনের চিহ্ণ পাওয়া গেছে। মুখে পেট্রোল ঢেলে দেওয়ার বিষয়টি মেডিকেল রিপোর্ট ছাড়া নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয়। কবিরুলের লাশের ময়না তদন্ত করা হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিজিবির কুশখালি বিওপির নায়েক সুবেদার আরিফ বলেন, এমন কোনো ঘটনা সম্পর্কে তার জানা নেই।