‘নাক ডাকা’য় বৃদ্ধাকে জবাই

গত ৪ জানুয়ারি বাড়ির কাজের ছেলের হাতে খুন হন নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়নের সরোল-বাগডাঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা হাজেরা বেগম।

হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকা সেই কাজের ছেলেকে মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার নাম আল আমিন ভুঁইয়া। সে নড়াইল সদরের পাইকমারি গ্রামের সাঈদ ভুঁইয়ার ছেলে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে খুনের কথা স্বীকার করেছে। জানিয়েছে, রাতে ঘুমের মধ্যে ‘নাক ডাকা’য় অতিষ্ঠ হয়ে সে হাজেরা বেগমকে খুন করে।

মঙ্গলবার দুপুরে নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিনের কার্যালয়ে আল আমিন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। পুলিশ সুপার জানান, ‘নাক ডাকা’র শব্দে অতিষ্ঠ হয়ে আল আমিন ছুরি দিয়ে গলাকেটে তার বাড়ির মালিককে হত্যা করে। পরে ছুরি পুকুরে ফেলে দেয়। আল আমিন বৃদ্ধার পাশের কক্ষেই ঘুমাত।’

জানা যায়, গত ৪ জানুয়ারি গভীর রাতে হাজেরা বেগমকে ঘর থেকে পুকুর পাড়ে নিয়ে গলাকেটে হত্যা করা হয়। ঘটনার চার দিন পর হত্যাকারীকে সনাক্ত করতে সক্ষম হয় পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত আল আমিন পুলিশ ও সাংবাদিকদের সামনে এই খুনের বর্ণনা দেয়।