পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি দিতেই পাশে দাঁড়াল চীন, ট্রাম্পকে বার্তা

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প পাকিস্তানকে নিজের ভূখণ্ডে সন্ত্রাসবাদীদের নিরাপদ আশ্রয় দেয়ার পরিণতি সম্পর্কে হুঁশিয়ারি দিতেই পাশে দাঁড়াল বন্ধু চীন। এমনকী বন্ধু ইসলামাবাদ সন্ত্রাস মোকাবিলায় সামনের সারিতে রয়েছে বলে ঘোষণা করল বেইজিং।

সোমবার ডোনাল্ড ট্রাম্প পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘‌সন্ত্রাসের ভয়াবহতা প্রত্যক্ষ করেছেন পাকিস্তানবাসী। তাঁদের নিরাপত্তার জন্য এতদিন কাঁড়ি কাঁড়ি টাকা জুগিয়ে এসেছে মার্কিন সরকার। কিন্তু তাতে আখেরে কোনো লাভ হয়নি। সন্ত্রাসবাদীদের নিকেশ করতে প্রতিনিয়ত লড়াই করে চলেছি আমরা। অথচ আমাদের টাকাতে সেই সহিংসতা ও সন্ত্রাসের দালালদেরই পুষছে ইসলামাবাদ।

পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদীদের স্বর্গরাজ্য হয়ে উঠেছে। মার্কিন সরকার কর্তৃক নিষিদ্ধ ঘোষিত প্রায় ২০টি সন্ত্রাসী সংগঠন নিরাপদ আশ্রয় পেয়েছে সেখানে। তাই আমাদের পক্ষে আর চুপ করে থাকা সম্ভব নয়। পাকিস্তানকে নিজের অবস্থান পাল্টাতেই হবে। কাল বা পরশু নয়, পাল্টাতে হবে এখন এবং এই মুহুর্তে। সভ্য, সুশৃঙ্খল এবং শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান গড়ে তুলতে নিজেদের উৎসর্গ করতে হবে।

আফগানিস্তানে শান্তি ফেরাতে আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছি আমরা। আমাদের পাশে দাঁড়াতে হবে পাকিস্তানকে। এতে তারাই লাভবান হবে। কিন্তু কুখ্যাত অপরাধী এবং জঙ্গিদের এভাবে মদত জুগিয়ে গেলে তাদের অনেক কিছু হারাতে হতে পারে।’‌

আফগানিস্তান ও দক্ষিণ এশিয়া সংক্রান্ত নীতি ঘোষণা করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট পাকিস্তানকে তোপ দেগে বলেন, আফগানিস্তানে আমেরিকানদের মারছে যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারি এজেন্টরা। তাদেরই নিরাপদ আশ্রয় দিচ্ছে পাকিস্তান। কিন্তু সন্ত্রাসবাদীদের লালনপালন করে গেলে পাকিস্তানকে অনেক কিছু খুইয়ে তার দাম চোকাতে হবে।

এই মন্তব্যের পরই ট্রাম্পের পাকিস্তান নিন্দার প্রতিক্রিয়ায় চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনিয়াং বলেন, ‘‌আমেরিকার নীতি সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত সংশ্লিষ্ট এলাকায় শান্তি, সুরক্ষা, স্থিতিশীলতার স্বার্থের সহায়ক হবে আশা করছি। পাকিস্তান সন্ত্রাস প্রতিরোধে সামনের সারিতে আছে, সন্ত্রাস বিরোধী লড়াইয়ে বলিদান দিয়েছে, শান্তি ও স্থিতিশীলতা বহাল রাখায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে।’‌

বাংলাদেশ সময়: ১৩০৮ ঘণ্টা, ২৩ আগস্ট ২০১৭
লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/এসএফ