কক্সবাজারে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ

Rape

কক্সবাজারের চকরিয়ায় ৭ বছর বয়সি শিশু প্রথম শ্রেণীর মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। ওই শিশুকে ফুসলিয়ে পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের মাতামুহুরী নদী সংলগ্ন মিষ্টি কুমড়ার ক্ষেতের ঝোপে ধর্ষণ করে হুমায়ুন (২৯) নামের এক যুবক। ধর্ষণে অভিযুক্ত পলাতক হুমায়ুন পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের আনিস পাড়ার মৃত আবদুস শুক্কুরের ছেলে।

এ ঘটনার ভিকটিমের চাচা বাদী হয়ে বুধবার রাত ৮টায় চকরিয়া থানায় একটি এজাহার দাখিল করেছেন। এজাহারে হুমায়ুনকে ধর্ষক ও অজ্ঞাতনামা দুইজনকে সহযোগী আসামী হিসেবে দেখানো হয়েছে।

মামলার এজাহারে দাবী করা হয়, ১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৭টার দিকে শিশু ছাত্রীকে ফুসলিয়ে মাতামুহুরী নদীর তীরে মিষ্টি কুমড়া ক্ষেতের ঝোপে নিয়ে অজ্ঞাত ২ ব্যক্তির সহযোগীতায় হুমায়ুন ধর্ষণ করে।

শিশু ছাত্রীর শোরচিৎকারে নিকটস্থ বাসিন্দারা এগিয়ে আসলে ধর্ষণে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়। ঘটনার পর ভিকটিমকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের গাইনি বিভাগের ওসিসি সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয় চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকের পরামর্শে। চিকিৎসা শেষে ৪ ডিসেম্বর বুধবার রাতে বাবা প্রতিবন্ধী হওয়ায় চাচা বাদী হয়ে এজাহারটি দায়ের করেন।