সিলেটে ব্যাটারিচালিত রিকশা চালকদের তোপের মুখে সিটি কর্পোরেশন

ইন্টারনেট সংগৃহীত ছবি

সিলেটে সিটি কর্পোরেশন ব্যাটারিচালিত অবৈধ রিকশার বিরুদ্ধে অভিযানে নেমে পড়েছে তোপের মুখে। রিকশা আটকের প্রতিবাদে চালকরা হামলার চেষ্টা করেছে নগরভবনে। এসময় সিটি কর্পোরেশনের শ্রমিক-কর্মচারীদের সাথে রিকশা চালকদের সংঘর্ষ হয়।

প্রায় আধা ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে বৃষ্টির মতো ইটপাটকেল নিক্ষেপ এবং ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হন। বুধবার আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, নগরীতে ব্যাটারিচালিত অবৈধ রিকশা বেড়ে যাওয়ায় কয়েকদিন ধরে সিটি কর্পোরেশন অভিযান পরিচালনা করছিল। অবৈধ রিকশা আটক করে নগরভবনে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। বুধবার অভিযান শুরু হলে ব্যাটারিচালিত রিকশার সহস্রাধিক চালক মিছিলসহকারে নগরভবনের ভেতরে প্রবেশের চেষ্টা করে। এসময় নগরভবনের প্রধান ফটক বন্ধ করে দেওয়া হয়।

এরপর রিকশা চালকরা ফটক ভেঙে ভেতরে ঢুকে হামলার চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে সিটি কর্পোরেশনের শ্রমিক-কর্মচারীরা রিকশা চালকদের ধাওয়া করলে শুরু হয় সংঘর্ষ। একপক্ষ অপরপক্ষকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। পরে পুলিশ এসে উভয়পক্ষকে সরিয়ে দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

এদিকে, নগরভবনের সামনে থেকে ফিরে এসে রিকশাচালকরা নগরীর বারুতখানা পয়েন্টে অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। পরে পুলিশ এসে ধাওয়া করে তাদের ফিরিয়ে দেয়।

অপরদিকে, সংঘর্ষের পর জরুরিভিত্তিতে সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে বসেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। বৈঠকে রিকশাচালকদের হামলার ঘটনায় নিন্দা ও উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী জানান, রিকশা চালকরা নগরভবনে হামলা করে সিলেটবাসীর হৃদয়ে কোঠারাঘাত করেছে। এ ঘটনায় আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।