বাস থেকে ফেলে হত্যা মামলায় চালক-হেল্পার কারাগারে

বাস থেকে ফেলে হত্যা মামলায় চালক-হেল্পার কারাগারে

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে আবু সায়েম মুরাদ নামের এক যুবককে বাস থেকে ধাক্কা মেরে নিচে ফেলে দিয়ে চাকায় পিষ্ট করে হত্যার অভিযোগে চালক শাহ আলম ও হেল্পার মোহন মিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) মামলার তদন্ত কর্মকর্তা যাত্রাবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুর রহমান আসামিদের আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন।

আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার অ্যাডিশনাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেনের আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

১৬ অক্টোবর তাদের এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। সংশ্লিষ্ট থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখার উপ-পরিদর্শক মাহমুদুর রহমান এ তথ্য জানান।

জানা যায়, আবু সায়েম মুরাদ মতিঝিলে একটি বায়িং হাউজে কর্মরত ছিলেন। ১৫ অক্টোবর সন্ধ্যার দিকে তিনি মতিঝিল থেকে ৮ নম্বর যাত্রীবাহী বাসে করে যাত্রাবাড়ীতে বাসার উদ্দেশে রওনা দেন। বাসটি যাত্রাবাড়ীর শহীদ ফারুক সড়কে আসামাত্র হেল্পার মোহন মিয়া ও চালক শাহ আলম তাকে মারধর করে বাস থেকে ফেলে দেন। চলন্ত গাড়ির চাকার নিচে মাথা পিষ্ট হয় মুরাদের। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগ নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় আবু সায়েমের বড় ভাই আবু সাদাত রাতেই যাত্রাবাড়ী থানায় হত্যা মামলা করেন।