আবাসন, পরিবহন নিশ্চিত না করে চূড়ান্ত পরীক্ষা বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্বহীনতা

Bangladesh Students Union

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন মনে করে যে, শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে আবাসন, পরিবহন ও পর্যাপ্ত সময় না দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনার্স ও মাস্টার্স শেষ বর্ষের পরীক্ষা আয়োজনের সিদ্ধান্ত বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনগুলোর দায়িত্বজ্ঞানহীনতার পরিচয়।

আজ রোববার (১৩ ডিসেম্বর) সংগঠনের কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি ফয়েজউল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক দীপক শীল এক বিবৃতিতে এসব কথা জানান।

এসময় শিক্ষার্থীদের আবাসন সুবিধা, স্বাস্থ্যগত সুরক্ষা, পরিবহন ও প্রস্তুতির জন্য পর্যাপ্ত সময় দিয়ে, পরীক্ষার সার্বিক পরিবেশ নিশ্চিত করে দ্রুত পরীক্ষা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন তারা।

বিবৃতিতে বলা হয়, করোনা ভাইরাস মহামারীতে গত ১৬ মার্চ থেকে সারাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ আছে। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অনলাইনে ক্লাস-পরীক্ষার কার্যক্রম চালাচ্ছে। তবে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোগত সমস্যা ও সকল শিক্ষার্থীদের ডিভাইস ও ইন্টারনেট সংযোগ নিশ্চিত করতে সরকার ব্যর্থ হয়েছে।

ফলে ২০১৪-১৫, ২০১৫-১৬, ২০১৬-১৭ সহ কয়েকটি শিক্ষাবর্ষের অনার্স ও মাস্টার্সের শেষ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা আটকে আছে। এতে বিভিন্ন পেশাগত ও চাকরির পরীক্ষা, গবেষণা ও উচ্চশিক্ষার সুযোগ হাতছাড়া হচ্ছে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের। এমন পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিলেও শিক্ষার্থীদের আবাসন, পরিবহন ও প্রস্তুতির জন্য পর্যাপ্ত সময় দেয়া নিয়ে গড়িমসি করছে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো।

নেতৃবৃন্দ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা শিক্ষার্থীদের সমস্যাগুলো সমাধানের চেষ্টা না করেই পরীক্ষা নিয়ে দায় সারতে চাইছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হল না খুলেই পরীক্ষা আয়োজন করতে চাইছে প্রশাসন। অন্যদিকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবহনের ব্যবস্থা করতে অপরাগতা জানিয়েছে। এছাড়া একই দিনে দুইটি পরীক্ষা, অনলাইন ক্লাসে শতভাগ শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত না থাকা সত্যেও পরিপূরক ক্লাস না নিয়ে মাত্র ১০ থেকে ১৫ দিনের নোটিশে অনার্স-মাস্টার্সের চূড়ান্ত পরীক্ষার সিদ্ধান্ত বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনগুলোর দ্বায়িত্বজ্ঞানহীনতারই পরিচয়।