ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পাত্তাই দিল না ইংল্যান্ড

ব্যাট হাতে ক্রিস গেইল, শিমরন হেটমেয়ার, আন্দ্রে রাসেল। বলে শ্যানন গ্যাব্রিয়েল, জেসন হোল্ডার, শেলডন কটরেল। ভাবা হচ্ছিল, ব্যাটে-বলে দারুণ ভারসাম্যপূর্ণ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ভালোই পরীক্ষা নেবে ইংল্যান্ড দলের। কোথাকার কী, উল্টো ব্যাটিং ব্যর্থতায় প্রথমার্ধেই ম্যাচ হারিয়ে বসে ক্যারিবীয়রা।। ব্যাটসম্যানদের মতো ব্যর্থ হয়েছে ক্যারিবীয় বোলিং লাইন আপও। ৮ উইকেটে সহজ জয় তুলে নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে নিজেদের শক্ত অবস্থা তৈরি করে নিয়েছে ইংল্যান্ড।

২১৩ রানের সহজ লক্ষ্যে খেলতে নেমে ক্যারিবীয় বোলারদের অসহায় করে তোলেন জো রুট ও জনি বেয়ারস্টো। ১৫তম ওভারে বেয়ারস্টো আউট হওয়ার আগে এই জুটি থেকে আসে ৯৫ রান। ৪৬ বলে ৪৫ রান করে গ্যাব্রিয়েলের শিকার হন ইংলিশ ওপেনার। জেসন রয় ও ইয়ন মরগান চোটে থাকায় আজ তিনে ব্যাটিং করতে পাঠানো হয় ক্রিস উকসকে। ৫৪ বলে ৪০ রান করে আস্থার প্রতিদানটা দারুণভাবে দিলেন এই অলরাউন্ডার। রুট ও উকস মিলে যোগ করেন ১০৪ রান। ১৯৯ রানে উকস ফিরে গেলে বাকি কাজটা ভালোভাবেই শেষ করেন রুট-স্টোকস। ৯৪ বলে ঠিক ১০০ রান করে অপরাজিত থাকেন রুট। চার ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের দুইয়ে উঠে এল ইংলিশরা।

এর আগে সাউটাম্পটনে টস জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ইংল্যান্ড। তৃতীয় ওভারেই অসাধারণ ইয়র্কারে এভিন লুইসের স্টাম্প তছনছ করে দেন ক্রিস উকস। সাই হোপকে নিয়ে ৫০ রান যোগ করে পারিস্থিতি সামলে উঠেছিলেন ক্রিসম গেইল। তবে ইংলিশ বোলারদের চাতুর্যপূর্ণ বোলিংয়ে স্বস্তিতে ছিলেন না ‘ইউনিভার্সাল বস’। গেইলের বিপক্ষে টানা খাটো লেন্থের বল করে যান ইংলিশ বোলাররা। দলীয় ৫৪ রানে লিয়াম প্লাঙ্কেটের বাউন্সারেই আউট হন গেইল। ৪১ বলে ৩৬ রন করেন তিনি।

পরের ওভারেই সাই হোপকে ফেরান মার্ক উড। ৫৫ রানে তিন উইকেট হারানো ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে বেশ ভালোভাবেই এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন হেটমেয়ার ও নিকোলাস পুরান। তবে জো রুটের জোড়া আঘাতে ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৩০তম ওভারে ৩৯ রান করা হেটমেয়ারকে ফেরান রুট। নিজের পরবর্তী ওভারে জেসন হোল্ডারকেও ফেরান ইংলিশ অলরাউন্ডার। দুটি ক্ষেত্রে বলের পর ক্যাচও লুফে নেন রুট।

এরপরই শুরু হয় ক্যারিবীয় লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানদের আসা যাওয়া। ‘জীবন’ পেলেও কাজে লাগাতে পারেননি আন্দ্রে রাসেল। ১৬ বলে ২১ রান করেন এই বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান। এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজ শিবিরে আঘাত হানে আর্চার ‘ঝড়’। একে একে পুরান, ব্রাফেট ও কটরেলকে ফেরান তিনি। শেষ পর্যন্ত ৪৪.৪ ওভারে ২১২ রানে শেষ হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস।

লেটেস্টবিডিনিউজ/এনপিবি