সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আবারও অশালীন মন্তব্যের মুখোমুখি স্বস্তিকা

স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় একজন ভারতীয় বাঙালি মডেল এবং অভিনেত্রী। আর এই অভিনেত্রী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফের অশালীন মন্তব্যের মুখোমুখি হয়েছেন। অবশ্য তিনি এই অশালীনতার জবাব দিতে ছাড়েননি। সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া ‘চরিত্রহীন’ সিজন ৩ নিয়ে কথা বলেছিলেন একটি ভিডিওতে। আর ঘটনার সূত্রপাত সেখান থেকেই। তিনি ওয়েব সিরিজের প্রসঙ্গে মানসিক অবসাদের কথা বলেছিলেন। আর তিনি ভিডিওটি নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে শেয়ার করেন। ক্যাপশনে লিখেন, ‘সবার দরকার এমন একজনকে যে মনের কথা শুনবে।’

ভিডিওর শ্লীলতার মাত্রা ছাড়ায় কমেন্ট বক্সে প্রথম কমেন্টটিই। ‘শুনবে ও শোবে’। কমেন্টটি করেন এক নারী। তিনি যে যৌনতার সঙ্গে অশ্লীলতাকে গুলিয়ে ফেলেছেন, সে কথাই ভাল মতো বুঝিয়ে দিয়েছেন স্বস্তিকা। স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় বলেন, যৌনতা নিয়ে নাক সিঁটকানোর কী আছে? এটা তো স্বাভাবিক বিষয়! নেটিজেনরা স্বস্তিকার এর উত্তরে শিক্ষা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন।

বললেন, ‘সবাই শুধু গালভরা প্রশংসা করবে না। সমালোচনা করলেই দোষ? নিজেকে কী ভাবেন? মেরিল স্ট্রিপ?’ প্রশ্নটির সহজ উত্তর দেন অভিনেত্রী। আর সঙ্গে তিনি যুক্তি দিয়ে সমালোচনা ও ব্যক্তিগত বিষয়ে মন্তব্য করার মধ্যে পার্থক্যটিও বোঝান। ‘আমি নিজেকে স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় ভাবি। আপনি তো আমার অভিনয় নিয়ে সমালোচনা করেননি। আপনি বললেন কথা বলা আর শোওয়া নিয়ে।’

স্বস্তিকা জানালেন, তার বাবা-মা তাকে শিখিয়েছেন, অন্যের প্রোফাইলে গিয়ে ব্যক্তিগত বিষয়ে মন্তব্য করা উচিত নয়। তাই তিনি এই শিক্ষা নিয়েই খুশি। শেষে চরিত্রহীন সিরিজ নিয়ে তার স্পষ্ট বক্তব্য, পয়সা দিয়ে দেখতে হয়। যদি সিরিজটিকে অশ্লীল বলে মনে হয়, তাহলে পয়সা খরচ করে দেখার দরকার নেই। ‘একদম পয়সা নষ্ট করবেন না। এমনিই কোভিডের বাজার।’

তার এই ব্যাঙ্গাত্মক উত্তরের কোনো জবাব আসেনি আর। তবে অন্য নেটিজেনরা তার পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। তারা ট্রোলের যোগ্য জবাব দিতে পিছপা হননি।