চুরি স্বীকার করলেন অজি আম্পায়ার

বিশ্বের বিতর্কিত ও নিন্দিত আম্পায়ার ছিলেন ড্যারেল হেয়ার। মুত্তিলা মুরালিধরনকে ‘নো’ ডেকে এবং এরপর কথার লড়াই বছরের পর বছর চালিয়ে বিতর্কটাকে শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছিলেন। তো সেই ড্যারেল হেয়ার স্বীকার করলেন, তিনি একজন চোর! ৬৫ বছরের অন্যতম বিতর্কিত সাবেক আম্পায়ার বলেছেন এই বছরই তিনি কাজের জায়গা থেকে ৯০০০ অস্ট্রেলিয়ান ডলার চুরি করেছেন!

ইতিহাসের সবচেয়ে বিতর্কিত আম্পায়ারদের একজনের এই সত্য কথন হঠাৎ কেন? আসলে জুয়া খেলার রোগে আক্রান্ত হেয়ার। আর সেই কারণেই তার এই কম্ম। এই ২০১৭ সালে একটি দোকানে কাজ করতেন তিনি। আর সেখান থেকে ফেব্রুয়ারি থেকে এপ্রিলের মধ্যে চুরি করেছেন ৫,৩১০ মার্কিন ডলার!

অস্ট্রেলিয়ার আদালতে উঠেছে বিষয়টি। সেখানে স্বীকারোক্তি দেওয়ার পর হেয়ারের ১৮ মাসের শাস্তি হয়েছে। না, জেল না। শর্ত দেওয়া হয়েছে, এই সময়ের মধ্যে ভালো ব্যবহার করা মানুষ হয়ে উঠতে হবে। আর চুরি করা টাকা ফেরৎ দিয়ে দিতে হবে। সই করতে হয়েছে হেয়ারকে। তার আইনজীবি বলেছেন, ‘আমার মক্কেল সবার চোখে চোখেই থাকেন অনেক বছর হলো। আর এখানকার ব্যাপারটাকে আমরা তার পতন বলতে পারি যে নিজেকে তিনি আদালতে পেলেন। ভালোবেসে সমাজ ও খেলার সেবা আজীবন করে যাওয়া মানুষটার জন্য এটা কষ্টের।’

আম্পায়ারিং ক্যারিয়ারে ১৯৯৫ সালে বক্সিং ডে টেস্টে অবৈধ বোলিংয়ের জন্য শ্রীলঙ্কান স্পিনার মুরালিকে ‘নো’ ডেকেছিলেন হেয়ার। সেটি এখন ক্রিকেট ফোকলোরে। ২০০৬ সালে বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগে ওভালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাকিস্তানকে শাস্তি দিয়েছিলেন। প্রতিবাদে নির্দিষ্ট সময়ে মাঠে না ফেরায় ইংলিশদের ম্যাচ জিতিয়ে দিয়ে মহা বিতর্কের ঝড় তুলেছিলেন। তারপরও আন্তর্জাতিক আম্পায়ার হিসেবে হেয়ার সবসময় একটা উচ্চতায় ছিলেন। কিন্তু এই চুরির ঘটনা তাকে অনেকের চোখে নিচে নামিয়ে দিল তা তো স্পষ্ট।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৬ ঘণ্টা, ২৪ অক্টোবর ২০১৭
লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/এসএফ