Home জেলার খবর টাকার সঙ্গে কেড়ে নিল জিহ্বাও

টাকার সঙ্গে কেড়ে নিল জিহ্বাও

- Advertisement -

সাতক্ষীরায় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার (এনজিও) এক কর্মীকে মারধরের পর জিহ্বা কেটে প্রায় ২০ হাজার টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল মঙ্গলবার রাতে সদর উপজেলার ফিংড়ি ইউনিয়নের গাভা ওয়াপদা সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত অবস্থায় জাহিদুল ইসলাম (৪০) নামের ওই ভুক্তভোগী ব্যক্তিকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জাহিদুলের বাড়ি কলারোয়া উপজেলা পৌরসদরের তুলসীডাঙ্গা গ্রামে। তিনি সদর উপজেলার আশা এনজিও’র ব্যাংদহা শাখার মাঠ কর্মী।

- Advertisement -

স্থানীয় কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে জাহিদুল ইসলাম ঋণ ও সঞ্চয় আদায় শেষে বাইসাইকেল যোগে অফিসে ফিরছিলেন। রাস্তায় ফিংড়ি ইউনিয়নের গাভা ওয়াপদা সড়কের কালভার্ট সংলগ্ন বেড়িবাঁধে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে একটি মোটরসাইকেলে আসা তিন যুবক তার পথরোধ করেন। পরে তাকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তার ব্যাগে থাকা প্রায় ২০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেন। এ সময় জাহিদুল বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করলে দুর্বত্তরা তাকে মারধর করেন। একপর্যায়ে তার গলা চেপে ধরে জিহ্বা কেটে রক্তাক্ত করে পালিয়ে যায়।

ঘটনার পর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ব্যাংদহা বাজারের গ্রাম্য ডাক্তার সুমল কুমারের কাছে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা আশা’র সাতক্ষীরা জেলা ব্যাবস্থাপক মো. শাহজাহান আলী বলেন, ‘এ ঘটনায় ব্যাংদহা শাখার ব্যবস্থাপক আল আমিন আল মামুন বাদী হয়ে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।’

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘এনজিওকর্মীকে জিহ্বা কেটে হত্যাচেষ্টার ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। পুলিশ দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তারে অভিযান পরিচালনা করছে।’

প্রসঙ্গত, জাহিদুল ইসলাম গত মার্চ মাসের ৯ তারিখে আশা’র ব্যাংদহা শাখায় যোগদান করেন।

- Advertisement -