‘ঘরে ঘরেতো চাকরি দিতে পারব না’

ফাইল ছবি

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, ঘরে ঘরেতো চাকরি দিতে পারব না। ঘরে ঘরে প্রত্যেক বেকার সদস্যকে চাকরি দেয়ার কথা আমি বলিনি। আমি বলেছিলাম, প্রতি পরিবারের অন্তত একজনকে চাকরি দেয়ার ব্যবস্থা করব।

বুধবার সচিবালয়ে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট প্রণয়নে নীতিগত বিষয়ের উপর মতবিনিময়ের জন্য গত ১০ মার্চ দেশের থিংক ট্যাংক প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনা শেষে ওই কথা বলেছিলাম। কিন্তু অনেক গণমাধ্যম প্রচার করেছে ‘ঘরে ঘরে প্রত্যেক বেকার সদস্যকে চাকরি দেয়া হবে’।

তিনি বলেন, প্রতি পরিবারে একজনকে চাকরির কাজটি আগামী বাজেট থেকেই বাস্তবায়নের উদ্যোগ থাকবে। সরকারি বা বেসরকারি যে কোনো ধরনের চাকরি হতে পারে।

তিনি বলেন, আমরা বিভিন্নভাবে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় নিয়ে আসতে কাজ করছি। পরিবারে একজনকে চাকরির ব্যবস্থা করতে পারলে নিরাপত্তা বেষ্টনীতে চাপ কমবে।

জানা গেছে, আগামী অর্থবছরের জন্য প্রাথমিকভাবে বাজেটের আকার ধরা হয়েছে পাঁচ লাখ ২৪ হাজার ৯৫০ কোটি টাকা, যা চলতি অর্থবছরের বাজেটের চেয়ে প্রায় ৬০ হাজার কোটি টাকা বা সাড়ে ১৩ শতাংশ বেশি।

আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারকে মূলভিত্তি হিসেবে বিবেচনায় নিয়ে বাজেট প্রণয়ন করা হচ্ছে। দারিদ্র্য বিমোচন, কর্মসংস্থান, সামাজিক সুরক্ষা এবং বিনিয়োগ আকৃষ্ট এবারের বাজেটের অন্যতম লক্ষ্য। সবচেয়ে বেশি জোর দেয়া হচ্ছে দারিদ্র্য বিমোচন ও কর্মসংস্থানে। আগামী বাজেটে গ্রামীণ মানুষের জীবনমান উন্নয়নে থাকছে বিশেষ পদক্ষেপ।