ইলন মাস্ক কি বিটকয়েন থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন?

ইলন মাস্ক কি বিটকয়েন থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন?

গত বছর ইলন মাস্কের বৈদ্যুতিক গাড়ি কোম্পানি টেসলা বিটকয়নে বড় রকমের বিনিয়োগের জন্য আলোচনায় এসেছিল। সম্প্রতি বিটকয়েনের লাগাতার পতনের পর টেসলা বিক্রি করে দিয়েছে তার ৭৫ শতাংশ বিটকয়েন।

গতকাল বুধবার (২০ জুলাই) টেসলার অর্থনৈতিক রিপোর্ট পর্যালোচনা করে দেখা যায়, সম্প্রতি কোম্পানিটি ৯৩৬ মিলিয়ন ডলার মূল্যমানের বিটকয়েন বিক্রি করেছে, যা মোট জোগানের ৭৫ শতাংশ।

টেসলা এ ব্যাপারে জানিয়েছে, ‘অর্থবছরের দুই-চতুর্থাংশ শেষ হওয়ায় তারা হাতে কিছু ডলার রাখতে চাচ্ছে। সে লক্ষ্যেই বিটকয়েন বিক্রি।’

টেসলার প্রধান নির্বাহী ইলন মাস্ক বলেন, ‘আমরা এখনই বিটকয়েনের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিচ্ছি না।’ গতকাল বুধবার (২০ জুলাই) টেসলার বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে এক আলোচনায় মাস্ক বলেন, ‘আমরা হাতে কিছু তরল অর্থ রাখতে চাচ্ছি। চীনে লকডাউন চলায় ব্যবসার ব্যাপারে আমাদের কিছু সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে। এ জন্যই বিটকয়েনগুলো বিক্রি করে দেয়া।’

গত বছরের প্রথমার্ধে টেসলা প্রায় দেড় বিলিয়ন ডলার মূল্যমানের বিটকয়েনে অর্থলগ্নি করে। মুদ্রা বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান কয়েনজেকো জানিয়েছে, টেসলা বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহৎ কোম্পানি, যারা বিটকয়েনে এত ডলার বিনিয়োগ করেছে। এ ছাড়াও গত বছরই টেসলা ঘোষণা দিয়েছিল, বিটকয়েনের মাধ্যমে টেসলার গাড়ি কেনা যাবে। যদিও দু-মাসের মধ্যে এ ধরনের সিদ্ধান্ত থেকে ফিরে আসেন ইলন মাস্ক।

ধারণা করা হচ্ছে, চলতি বছরের শুরু থেকে বিটকয়েনের টানা দরপতনে ধীরে ধীরে বিটকয়েন থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন ইলন মাস্ক।

বিগত বছরের নভেম্বরেও ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজার ছিল রমরমা। কিন্তু এ বছর এসে ভাটা পড়েছে ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজারে। গত মাসে জনপ্রিয় ক্রিপ্টোকারেন্সি বিটকয়েনের দাম এত বেশি নেমে গেছে যে, তা ছাড়িয়ে গেছে বিগত ১৮ মাসের রেকর্ড।

সংবাদ সূত্রঃ টেসলার অর্থনৈতিক রিপোর্ট