ঘরের মাঠে জিততে ভুলেই গেল ইতালি

ঘরের মাঠে প্রতিটি দেশেরই দাপটের দেখা মেলে। কিন্তু ইতালি যেন উল্টো স্রোতে ভেসে বেড়ায়। সত্যিই বিস্ময়কর! টানা পাঁচ ম্যাচ নিজেদের মাঠে জয় ধরা দিল না আজ্জুরিদের হাতে। বুধবার রাতে জেনোয়াতে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ইউক্রেনের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে স্বাগতিকরা। ইতিহাস জানাচ্ছে, ঘরের মাঠে এমন পতন হয়েছিল সেই ১৯২৩ থেকে ১৯২৫ সালে। তখন টানা পাঁচ ম্যাচে জয় সোনার হরিণ হয়েই ছিল।

চারবার বিশ্বকাপ জয়ী ইতালির সত্যিকার অর্থেই বাজে সময় কাটছে। রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিট পায়নি। কিন্তু এরপরও নিজেদের ব্যর্থতার বলয় থেকে বের করতে পারেনি তারা। তবে এদিন দুর্দান্ত খেলেও জেতা হয়নি। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বল পায়ে দাপট থাকলেও ইউক্রেনের জালে বল পাঠানোর প্রতিযোগিতায় চমক দেখাতে পারেনি তারা।

তবে এজন্য অবশ্যই প্রশংসা পাচ্ছেন ইউক্রেনের গোলকিপার আন্দ্রেই পিয়াতভ। পোষ্টের নিচে প্রাচীর হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। তবে ৫৫তম মিনিটে ফরোয়ার্ড ফেদরিকো বের্নারদেস্কির শট তার হাতে লেগে জাল স্পর্শ করলে এগিয়ে যায় ইতালি।

এরপর পাল্টা আক্রমণ থেকে খেলায় সমতা ফেরায় ইউক্রেন। ৬২তম মিনিটে সমতা সূচক গোলকটি করেন রুসলান মালিনভস্কি। তারপর এগিয়ে যাওয়ার অনেক চেষ্টা করলেও নিশানা খুঁজে পায়নি ইতালির ফুটবলাররা।

দুঃখজনক হলেও সত্য শেষ ১২ ম্যাচের মাত্র দুটিতে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইতালি। আর সেই দুটি জয় এসেছে অপেক্ষাকৃত দুর্বল প্রতিপক্ষ আলবেনিয়া ও সৌদি আরবের বিপক্ষে।