নারায়ণগঞ্জে ছাত্রদল-যুবদলের সম্মিলিত মিছিলে ছাত্রলীগের হামলা

Narayanganj

বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চলের ঢাকা বিভাগের নারায়ণগঞ্জ জেলায় কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে জেলা ছাত্রদল, যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের সম্মিলিত বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় ছাত্রলীগের হামলায় ৭ নেতাকর্মী আহত হন।

গতকাল শুক্রবার ঢাকা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও চট্টগ্রামে মোদীবিরোধী বিক্ষোভে হামলার প্রতিবাদে শনিবার (২৭ মার্চ) দুপুরে রূপগঞ্জে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে বিক্ষোভ মিছিল বের করে জেলা ছাত্রদল, যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দল।

জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক খাইরুল ইসলাম সজীব জানান, দুপুরে বিক্ষোভ মিছিলের জন্য জড়ো হতে থাকলে সেখানে হামলা চালায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। লাঠিসোঁটা, দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা করে ৭ নেতাকর্মীকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করে। আহতরা স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

আহতরা হলেন—সোনারগাঁও থানা ছাত্রদলের সদস্য সচিব জহিরুল ইসলাম জনি, রূপগঞ্জ থানা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক আলিফ, জেলা ছাত্রদল কর্মী সজল, রাজু, জাহিদুল ইসলাম বাবুসহ ৭ জন।

মিছিলে উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি, সাধারণ সম্পাদক খাইরুল ইসলাম সজীব, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আনোয়ার সাদাত সায়েম, সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুর রহমান স্বপনসহ ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দলের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা।

জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান বলেন জানান, এভাবে হামলা করে আমাদের প্রতিবাদকে দমিয়ে রাখা যাবে না। দেশ ও গণতন্ত্র রক্ষার পাশাপাশি সব ধর্মের সব মানুষের পাশে দাঁড়ানো আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। আমরা এ দায়িত্ব থেকেই প্রতিবাদ-প্রতিরোধ অব্যাহত রাখবো।

জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আনোয়ার সাদাত সায়েম বলেন, হামলা করে আমাদের দমিয়ে রাখা যাবে না। মানুষকে হত্যা করে ক্ষমতার মসনদে আর টিকতে পারবে না এই সরকার। দেশের মুক্তিকামী মানুষের পাশে আমরা সর্বাত্মকভাবে থাকবো।