নতুন দিল্লির বাংলাদেশ মিশনে বিজয় দিবস উদযাপন

New Delhi

রাজনৈতিক এবং আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে আরও এগিয়ে নেওয়ার শপথ নিয়ে ৫০তম বিজয় দিবস উদযাপন করেছে ভারতের নতুন দিল্লি বা নয়াদিল্লির বাংলাদেশ হাইকমিশন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং মুক্তিযুদ্ধে জীবন উৎসর্গকারী বীর শহীদ ও নির্যাতিত মা-বোনদের কথা স্মরণ করে তাদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে বাংলাদেশ মিশন।

বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) সকালে নয়াদিল্লির বাংলাদেশ মিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে হাইকমিশনার মুহাম্মদ ইমরান জাতীয় পতাকা উত্তেলন করেন। এ সময় জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়।

এরপর রাষ্ট্রদূতসহ অন্যরা মিশনের মুজিব কর্নারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলমের বাণী পাঠ করে শোনানো হয়। এসব বাণী পাঠ করে শোনান মিশনের মিনিস্টার (রাজনৈতিক) মো. নুরাল ইসলাম, অর্থনৈতিক কাউন্সিলর রাশেদুল আমিন, উইং কমান্ডার এস এম রাগিব সামাদ, সহকারী প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা এবং কাউন্সেলর মো. শফিউল আলম।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও বার্তাও পরিবেশন করা হয়।

বক্তব্যে হাইকমিশনার মুহাম্মদ ইমরান বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রগতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করেন।

ইমরান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল ও ভিশনারি নেতৃত্বে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়ার পথে ব্যাপক অগ্রগতি অর্জন করেছে।

স্বাধীনতার ৫০ বছরে বাংলাদেশে vibrant অর্থনীতি, স্থিতিশীল গণতন্ত্র এবং সেকুল্যার সমাজ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেন হাইকমিশনার।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতির কথা উল্লেখ করে মুহাম্মদ ইমরান বলেন, আমরা গর্বিত, আমাদের বর্তমান নেতৃত্ব কার্যকরভাবে বঙ্গবন্ধুর পররাষ্ট্রনীতি ‘সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব, কারও সঙ্গে বৈরিতা নয়’ অনুসরণ করছে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা, মিশন শিশুদের মধ্যে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।