পৈতৃক সম্পত্তি নয়, পদ্মা সেতু তৈরি জনগণের টাকায়: মির্জা ফখরুল

পৈতৃক সম্পত্তি নয়, পদ্মা সেতু তৈরি জনগণের টাকায়: মির্জা ফখরুল
বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর - সংগৃহীত ছবি

জনগণের টাকায় তৈরি পদ্মা সেতু নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে অতিকথনের অভিযোগ তুলে বিএনপি এর সমালোচনা করে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এটি আওয়ামী লীগের পৈতৃক সম্পত্তি নয়।

আজ বুধবার (১৮ মে) বিকেলে তিনি গুলশান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন। সরকারের খামখেয়ালি আচরণের কারণে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ভেঙে পড়েছে বলেও বিএনপি মহাসচিবের দাবি।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে অনুষ্ঠিত হয় বিএনপির সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক। সিদ্ধান্ত জানাতে বুধবার বিকেলে গুলশান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে দলটি।

ব্রিফিংয়ে পদ্মা সেতু প্রসঙ্গ উঠে আসে। বিএনপির মহাসচিব বলেন, জনগণের টাকায় সেতু তৈরি হলেও ক্ষমতাসীন দল এটিকে নিজের সম্পত্তি মনে করে। টোলের হার নির্ধারণ নিয়েও সমালোচনা করে তিনি বলেন, উনারা কি নিজেদের পৈতৃক সম্পত্তি দিয়ে বানিয়েছেন, না আমাদের পকেটের টাকা কেটে নিয়ে বানিয়েছেন। ১০ হাজার কোটি টাকার প্রকল্পকে দাঁড় করিয়েছেন ৩০ হাজার কোটি টাকায়।

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, সরকারের খামখেয়ালি আচরণের কারণে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ভেঙে পড়েছে। স্থবিরতা কাটাতে দ্বিতীয় পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রসহ ৮টি মেগা প্রকল্প বন্ধের দাবিও জানান তিনি।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, মেগা প্রকল্প মানে মেগা দুর্নীতি। ঢাকা ও চট্টগ্রাম বুলেট ট্রেন। দ্বিতীয় পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প, ঢাকার বাইরে রাজধানী স্থানান্তর, এ মুহূর্তের বাস্তবতায় এ প্রকল্পগুলো বাংলাদেশের অর্থনীতির ক্ষেত্রে বিবেচ্য হতে পারে না। এ সব প্রকল্প অনতিবিলম্বে বন্ধ করা হোক।

রিজার্ভ এবং ডলারের বিপরীতে টাকার মান কমে যাওয়া, মূল্যস্ফীতি নিয়েও বিএনপি উদ্বোগ প্রকাশ করেছে।