স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করবে না বাংলাদেশ লেবার পার্টি

Bangladesh Labor Party

বাংলাদেশ লেবার পার্টি ঘোষণা দিয়ে বলেছেন যে, তার স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করবে না। দলের চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান বলেছেন, দেশে এখনও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা পায়নি।

সত্তরের নির্বাচনে পাকিস্তান আমলেও সুষ্ঠু নির্বাচন হয়েছিল কিন্তু এই সরকারের আমলে তা হচ্ছে না। যার কারণে আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করব না। একইসঙ্গে ওই দিন কালো পতাকা প্রদর্শন করা হবে। আজ শনিবার (২৮ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের’ দাবিতে বাংলাদেশ লেবার পার্টি আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এ কথা বলেন।

মানববন্ধনে প্রধান অতিথি ছিলেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

বিশেষ অতিথি ছিলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব প্রমুখ।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, দ্রব্যমূল্য বিষয়ে আওয়ামী লীগ সরকার বলেছিল ১০ টাকা কেজি চাল খাওয়াবে। ১০ টাকা কেজি চাল এখন ৬০ টাকায় গিয়ে ঠেকেছে। দ্রব্য মূল্যবৃদ্ধিতে সরকার দুঃখিত নয়। তাদের প্রধানমন্ত্রী-মন্ত্রী বা নেতা এ বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন না। উপরন্তু ১৫ দিন, এক মাস পর পদ্মাসেতুর স্প্যান বসিয়ে উন্নয়ন দেখায়। এটাকে উন্নয়ন বলে না। সর্বস্তরের মানুষের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করা উন্নয়ন বলে না। কিন্তু সরকার এটা মনে করে না।

তিনি বলেন, সরকার একের পর এক মেগা প্রজেক্ট হাতে নিয়েছে। এবং মেগা প্রজেক্টের নামে লুটপাট করছে।

মান্না বলেন, মূল্যবৃদ্ধিতে সরকারের কাছে কোনো যুক্তি নেই। তারা বিরোধীপক্ষকে দমন করতে পারে। নির্যাতন করতে পারে, হত্যা-গুম করতে পারে; কিন্তু দ্রব্যমূল্য বাড়ানো নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, এ সরকার জনগণের সরকার নয়, যার কারণে তারা জনগণের অধিকারের কথা বলে না। আমাদের প্রতি প্রতিদিন প্রতিনিয়ত সরকারের বিরুদ্ধে সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হবে।