কুমিল্লায় করোনা উপসর্গ নিয়ে বৃদ্ধার মৃত্যু

death

করোনা উপসর্গ নিয়ে কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে হনুফা বেগম (৭০) নামক এক বৃদ্ধা মারা গেছেন। তিনি মনতলি গ্রামের মৃত নুরুল হক ভূঁইয়ার স্ত্রী। শনিবার (১৩ জুন) দুপুর ১২টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। উপজেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে ‘ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ’ এর একটি টিম ওই বৃদ্ধার মরদেহ দাফন করে।

জানা যায়, গত বুধবার (১০ জুন) হনুফা বেগমের মেয়ে নুরজাহান (৫২) তার স্বামীর বাড়ি শ্রীরামপুরে মারা যায়। তিনি কয়েকদিন থেকে মেয়ের কাছেই ছিলেন। এরই মধ্যে তার মধ্যে করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। অবস্থার অবনতি হলে শনিবার (১৩ জুন) কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া হলে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ১২টার দিকে তিনি মারা যান।

করোনা উপসর্গ নিয়ে ওই বৃদ্ধা মারা যাওয়ায় আত্মীয়-স্বজন কিংবা প্রতিবেশিরা এগিয়ে না আসায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লামইয়া সাইফুলকে অবহিত করেন। তিনি নাঙ্গলকোটে গঠিত ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর টিমকে ওই বৃদ্ধাকে দাফনের নির্দেশ দিলে বাদ আসর মরদেহ মহিলা স্বেচ্ছাসেবক দ্বারা গোসল ও কাফন পরিয়ে পুরুষ স্বেচ্ছাসেবক কর্তৃক জানাজা ও পারিবারিক কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়।

এসময় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কুমিল্লা জেলা দক্ষিণের দাফন কার্য সম্পন্ন কমিটির টিম প্রধান আলহাজ্ব সেলিম মাহমুদ ও টিম সমন্বয়ক নেছার উদ্দিন সুমন ও উপদেষ্টা সহিদ উল্লাহ ভূঁইয়াসহ ১২ সদস্য বিশিষ্ট একটি টিম ও প্রশাসনের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লামইয়া সাইফুল জানান, খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক টিম পাঠিয়ে ওই বৃদ্ধাকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন অনুসারে দাফন করা হয়েছে। করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে তিনি সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দেন।