পুত্র ও পুত্রবধূকে অর্ধকোটি টাকার ফার্নিচার দিলেন ডিপজল

ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল

ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল। তিনি ১৯৫৮ সালের ১৫ জুন ঢাকার মিরপুরের বাগবারিতে জন্মগ্রহণ করেন। একই সঙ্গে তিনি প্রযোজক, লেখক, রাজনীতিবিদ এবং ব্যবসায়ী। তিনি বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে সক্রিয়। চলচ্চিত্র পরিচালক মনতাজুর রহমান আকবরের হাত ধরে চলচ্চিত্রে আগমন ঘটে তার। চলচ্চিত্রের পর্দায় এ অভিনেতাকে নেতিবাচক ও ইতিবাচক দুই চরিত্রেই দেখা গেছে। তবে খল অভিনেতা হিসেবেই অধিক পরিচিত তিনি। প্রথমে খল চরিত্রে অভিনয় করলেও চাচ্চু চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি ভালো চরিত্রে অভিনয় শুরু করেন। মনোয়ার হোসেন ডিপজল বর্তমানে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

পর্দায় যেমনই থাকুক না কেন, বাস্তব জীবনে হিরোর ভূমিকায় দেখা গেছে ডিপজলকে। সব সময়ই অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান তিনি। চলচ্চিত্র পাড়ায় ‘দানবীর’ হিসেবে খ্যাতি রয়েছে তার। তিনি ফাহিম শুটিং স্পট, এশিয়া সিনেমা হল, পর্বত সিনেমা হল, জোবেদা ফিল্মস, পর্বত পিকচার্স-২, ডিপজল ফুড ইন্ডাস্ট্রিজের স্বত্বাধিকারী। করোনা মহামারির শুরু থেকেই ডিপজল নানাভাবে চলচ্চিত্রের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। দাপুটে এই অভিনেতা অসহায় শিল্পী, কলাকুশলী, পরিচালক, টেকনিশিয়ানদের বরাবরই সহযোগিতা করেন। এমনকি চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোর বিভিন্ন অনুষ্ঠানেও অনুদান দিয়ে থাকেন।

এবার ডিপজল তার ছেলের বিয়েতে অর্ধকোটি টাকার ফার্নিচার উপহার দিলেন ছেলে ও তার পুত্রবধূকে। গত শনিবার রাজধানীর একটি ফার্নিচারের দোকান থেকে অর্ধকোটি টাকার ফার্নিচার ক্রয় করেন বলে ডিপজলের ঘনিষ্ঠজন জাকির হোসেন জানান।

আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ডিপজলের ছেলের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হবে। বিয়ের অনুষ্ঠান ধুমধাম করে করার কথা থাকলেও করোনার কারণে শুধু পরিবারের লোকজন নিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠান শেষ করবেন। ডিপজল বলেন, ‘ইচ্ছে ছিল পরিবার, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব ও এলাকার লোকজন নিয়ে বড় করে অনুষ্ঠান করার। কিন্তু করোনার কারণে তা আর হচ্ছে না। পরিবারের লোকজন নিয়ে এখন অনুষ্ঠান করছি।’