কারাগারে খালেদা জিয়াকে কোনো চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে না: রিজভী

কারাগারে থাকা বিএনপি চেয়ারপারসন গুরুতর অসুস্থ দাবি করে দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করেছেন, কারাগারে খালেদা জিয়াকে কোনো চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে না।

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রোববার আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

রিজভী বলেন, সরকারি মেডিকেল বোর্ড মামুলি প্রহসনের এক্স-রে ও রক্ত পরীক্ষা করে খালেদা জিয়ার ফিজিওথেরাপির সুপারিশ করেছে। খালেদা জিয়া একজন বয়স্ক ও দেশের জনপ্রিয় নেত্রী, যিনি দীর্ঘদিন ধরে হাঁটু ও চোখের সমস্যায় ভুগছেন। কারাগারে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে রাখায় তার আরও বেশ কিছু শারীরিক সমস্যা দেখা দিয়েছে।

খালেদা জিয়াকে ‘তিলে তিলে নিঃশেষ’ করার জন্যই তাকে পরিকল্পিতভাবে সাজা দিয়ে কারাবন্দি করা হয়েছে— এমন অভিযোগ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, এখন তাকে চিকিৎসার সুযোগও দেওয়া হচ্ছে না।

এছাড়া কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ আত্মীয়স্বজনদের দেখা করতে বাধা দেওয়া হচ্ছে বলেও এ সময় অভিযোগ করেন রিজভী।

অতি দ্রুত খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়ার দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সরকারি হুকুমে কারসাজিমূলকভাবে খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত করা হয়েছে। এসব ঘৃণ্য চক্রান্ত বাদ দিয়ে খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে মুক্তি দিন। খালেদা জিয়ার ইচ্ছানুযায়ী তার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করুন।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম, ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশফাক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত। ওইদিন থেকেই তিনি কারাগারে রয়েছেন। নাজিমুদ্দিন রোডের পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারের ডে-কেয়ার সেন্টারে ডিভিশনপ্রাপ্ত বন্দির মর্যাদায় রাখা হয়েছে তাকে।

কারা কর্তৃপক্ষের অনুরোধে গত ৩১ মার্চ খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় ঢাকা মেডিকেল কলেজের অর্থোপেডিক বিভাগের প্রধান অধ্যাপক শামসুজ্জামান নেতৃত্বে চার সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। বোর্ডের অপর সদস্যরা হলেন— হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের ডা. টিটু মিয়া, নিউরোলজি বিভাগের ডা. মনসুর হাবীব ও ফিজিক্যাল মেডিসিন বিভাগের ডা. সোহেলী রহমান।

এই মেডিকেল বোর্ডের সুপারিশের ভিত্তিতেই গত ৭ এপ্রিল স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নেওয়া হয়। সেখানে কয়েকটি এক্স-রে করার পর পুনরায় তাকে নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নেওয়া হয়।

পরে ওইদিনই এক ব্রিফিংয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আপাতদৃষ্টিতে ভালো আছেন।

বাংলাদেশ সময়ঃ ১৪১৫ ঘণ্টা, ১৫ এপ্রিল, ২০১৮