চিরকুট লিখে গলায় ফাঁস দিয়ে রাবি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

চিরকুট লিখে গলায় ফাঁস দিয়ে রাবি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা
আত্মহত্যাকারী শিক্ষার্থী সাদিয়া তাবাসসুম - সংগৃহীত ছবি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক শিক্ষার্থী বাবার ডায়েরিতে চিরকুট লিখে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। গতকাল মঙ্গলবার (১০ মে) দুপুরে নিজ ঘরে বাঁশের আড়ার সঙ্গে ফাঁস লাগিয়ে ওই শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেন। রাবির ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আত্মহত্যাকারী সাদিয়া তাবাসসুম। সাদিয়া স্বপরিবারে ময়মনসিংহ শহরে বসবাস করেন। ঈদের আগে তারা বাড়িতে আসেন। ঘটনার দিন সকাল থেকে সাদিয়া নিজের বাড়িতে ঘুরাফেরা করছিল। তার গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার গৌরীপুর উপজেলার মাওহা ইউনিয়নের বিষমপুর গ্রামে। মৃত শিক্ষার্থী অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য মাহবুব রশিদ ফারুকের মেয়ে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড.সোহেল কবির। তিনি জানান, ঘটনাটি সম্পর্কে জেনেছি। এটা খুব হতাশাজনক। আমাদের একজন শিক্ষার্থী এভাবে মারা যাবে, আমরা ভাবতেও পারেনি। তবে কি কারণে আত্মহত্যা করেছে সঠিক কারণ বলতে পারছি না।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মৃত্যুর আগে সাদিয়া তার বাবার ডায়েরিতে লিখেছে- ‘চুরাবালির মতো ডিপ্রেশন, বেড়েই যাচ্ছে, মুক্তির পথ নেই, গ্রাস করে নিচ্ছে জীবন, মেনে নিতে পারছি না।’ দুপুরে নিজ ঘরে বাঁশের আড়ার সঙ্গে ফাঁস দেয়। পরিবারের লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে তাকে উদ্ধার করে গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।