লক্ষ্মীপুরে একসঙ্গে ৭ সন্তানের জন্ম, মারা গেছে সবাই

লক্ষ্মীপুর শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে একসঙ্গে জন্ম নেয়া অপরিণত সাত নবজাতক মারা গেছে। আজ ভোরে তাদের মৃত্যু হয়। এর আগে শুক্রবার রাত  সাড়ে ১০টার দিকে স্বাভাবিকভাবে ওই সাত নবজাতকের জন্ম দেন হতদরিদ্র কৃষক রাজু আহমদের স্ত্রী গৃহবধূ নাজমা আক্তার।

হাসপাতাল সূত্রে ও প্রসূতির স্বজনরা জানান, শুক্রবার বিকালে সদর উপজেলার লাহারকান্দি ইউনিয়নের পাটোয়ারী বাড়ির রাজু আহমদের স্ত্রী নাজমা আক্তারের প্রসব বেদনা শুরু হয়। পরে তাকে স্বজনরা নিয়ে এসে শহরের সিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর রাত সাড়ে ১০টার দিকে কোনো সিজারিয়ান পদ্ধতি ছাড়াই চারটি মেয়ে ও তিনটি ছেলে প্রসব করেন গৃহবধূ নাজমা।

একসঙ্গে সাত নবজাতকের জন্ম দেয়ার খবর শহরে ছড়িয়ে পড়লে রাতেই স্থানীয় জনতা এক নজর দেখার জন্য হাসপাতালটিতে ভিড় করতে থাকেন। সবার মধ্যেই ছিল অন্যরকম এক উৎসাহ। কিন্তু সবাইকে হতাশ করে ভোররাতে না ফেরার দেশে চলে যায় সাত নবজাতকই।

হাসপাতালটির এক চিকিৎসক সাংবাদিকদের সাত নবজাতকের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।।