গার্মেন্টসে কাজ করছেন শবনম ফারিয়া

স্বামী-স্ত্রীর টানাপড়েনের সংসার। তাই ট্যাক্সি চালক স্বামীর পাশে দাঁড়াতে পোশাক কারখানায় কাজ করছেন শবনম ফারিয়া। অভিনয় জগতে শবনম ফারিয়া বহুরূপী। কখন লাস্যময়ী, কখনও মিষ্টি মেয়ে, আবার কখনও রাগী, রোম্যান্টিক সব চরিত্রে। এবারই প্রথম ওইসব খোলস থেকে বেরিয়ে এলেন শবনম ফারিয়া। দেখা গেল তিনি গার্মেন্টসে কাজ করছেন।

শফিকুর রহমান শান্তনুর রচনায় স্বপন বিশ্বাসের পরিচালনায় ‘নাকফুল’ শিরোনামের একটি নাটকে তিনি একজন পুরোপুরি গার্মেন্টস কর্মীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

সময় পেলেই সজল তার ট্যাক্সিতে ফারিয়াকে নিয়ে ঘুরতে বের হয়। শপিংমলের এক জুয়েলারির দোকানে ফারিয়া পছন্দ করে বসে একটি স্বর্ণের নাকফুল। তবে স্ত্রীকে তা কিনে দেয়ার মতো টাকা নেই সজলের কাছে। ফারিয়া তার মাটির ব্যাংক ভেঙে জমানো টাকা তুলে দেয় স্বামীর হাতে। কিন্তু পরদিন নাকফুল না কিনে সজল ফিরে আসে রক্তাক্ত শার্ট গায়ে।

সেই রক্তাক্ত শার্টের পেছনের রহস্য ভেদ করতে গিয়ে সজলের সঙ্গে শুরু হয় ফারিয়ার সংঘাত। স্বামী-স্ত্রীর এই সংঘাত এবং সংঘাতের পিছনের রহস্য নিয়েই তৈরি ‘নাকফুল’। নাটকটি শিগগির একটি বেসরকারি চ্যানেলে প্রচারিত হবে। গত মাসে এই নাটকের শুটিং হয়েছে দক্ষিণ খানের গার্মেন্টসে।

এ প্রসঙ্গে শবনম ফারিয়া বলেন, আমি সেলাই দিতে জানতাম না। এই চরিত্রের জন্য গার্মেন্টস কর্মীদের সঙ্গে মিশেছি। তারা আমাকে সেলাই শিখিয়েছে। আমি তাদের পাশে গিয়েছি, কথা বলেছি মিশেছি তারা খুব খুশি হয়েছে। দুদিন ধরে সেখানে শুটিং করেছিলাম। এক দম্পতির গল্পের নাটক নাকফুল। স্বামীর চরিত্রে কাজ করেছেন সজল ভাই। তিনি এখানে ট্যাক্সি ড্রাইভার হিসেবে অভিনয় করেছেন।