আমেরিকায় স্থায়ী হওয়ার জন্যই আবেদন করেছিলেন শাকিব?

Shakib Khan

আমেরিকায় স্থায়ী হচ্ছেন দেশসেরা চিত্রনায়ক শাকিব খান- গেল কয়েকদিন ধরেই এই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল এফডিসিপাড়ায়। বেশ কিছু সূত্র জানিয়েছে, অভিনয়শিল্পী হিসেবে ইবি ক্যাটাগরির ভিসার জন্য আবেদন করেছেন এই নায়ক। তার সেই আবেদন গেল ডিসেম্বরে গৃহীত হয়েছে।

সূত্রে জানা যায়, একটি দক্ষ এজেন্সির মাধ্যমে শাকিব খান আবেদনটি করেছেন। শাকিবের এই আবেদনটি দেখাশোনা করছেন আমেরিকা প্রবাসী নেপালি নাগরিক। শাকিবের আবেদন সবুজ সংকেত পাওয়ায় এই উকিল প্রত্যাশা করছেন শিগগিরই তার মক্কেলের হাতে আমেরিকার গ্রিন কার্ড পৌঁছে দিতে পারবেন।

জানা গেছে, বিভিন্ন সময় শাকিব খান আমেরিকায় শুটিং করার জন্য ভিসা চেয়েছিলেন। কিন্তু বারবারই তার আবেদন নামঞ্জুর হয়েছে। অবশেষে তিনি দেশটিতে স্থায়ীভাবে বসবাস করা যায় সেই মর্মে গ্রিন কার্ডের জন্য আবেদন করেন।

এদিকে শাকিব খানের আমেরিকায় স্থায়ী হওয়ার খবর সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিকে বেশ ধাক্কা দিয়েছে। হঠাৎ কেন এমন সিদ্ধান্ত নিলেন জনপ্রিয় এ নায়ক? তবে কী তিনি নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে হতাশায় ভুগছেন?

সিনেমা সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, বর্তমানে সিনেমার অবস্থার কথা চিন্তা করতেই শাকিব খান দেশ ছাড়ছেন। দেশে সিনেমার যা অবস্থা তা ছাড়া শাকিব খান এখন জনপ্রিয়তার শীর্ষে আছেন। জনপ্রিয়তা হয়তো আগামীতে থাকবে না। হয়তো এগুলোতে হতাশ হয়ে নিজের জনপ্রিয় ইমেজটা ধরে রেখে আড়ালে চলে যেতে চান তিনি। স্থায়ী হতে চাইছেন বিদেশে।

এর আগে শোবিজের একঝাঁক শিল্পী দেশ ছেড়ে বিদেশে স্থায়ী হয়েছেন। এ তালিকায় আছেন টনি ডায়েস, প্রিয়া ডায়েস, রিচি সোলায়মান, সোনিয়া, মোনালিসা, দিলরুবা রুহি, তমালিকা কর্মকার, শ্রাবন্তীসহ অনেকে।