চিঠিতে লিখে গেছেন ম্যারাডোনা তার শেষ ইচ্ছা

ম্যারাডোনা - সংগৃহীত ছবি

বিশ্ববিখ্যাত নেতা আর্জেন্টিনার ভ্লাদিমির লেনিনের মতোই তার দেহ সংরক্ষণের ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন তিনি। ১৩ অক্টোবর নিজের শেষ ইচ্ছা প্রকাশ করে সই করে গিয়েছিলেন তিনি।

১৯২৪ সালে মারা গিয়েছিলেন লেনিন। মস্কোর রেড স্কোয়ারে তার দেহ সংরক্ষণ করা রয়েছে। ম্যারাডোনার ইচ্ছা তার দেহও সংরক্ষণ করা হোক, সঙ্গে তার ট্রফি। ম্যারাডোনা লেখেন, ‘গভীর ভাবে চিন্তা করার পর, আমার ইচ্ছা যে আমার দেহ সংরক্ষণ করা হোক। সেখানেই রাখা থাক আমার সব ট্রফি, ব্যক্তিগত জিনিস।

মানুষ এসে তাঁদের ভালবাসা জানিয়ে যাক সেখানেই।’ ম্যারাডোনার আইনজীবী মারিয়ো বাউড্রি জানিয়েছেন, বেলা ভিস্টার কবর থেকে ম্যারাডোনার দেহ তুলে আনার ভাবনার কথা। তিনি বলেন, “এমন কথাও সমাধি করা হোক যেখানে সব ভক্তরা আসতে পারবেন। এই ভাবনা ম্যারাডোনা তার ভাইদের সঙ্গেও আলোচনা করেন।”

৬০ বছর বয়সে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ম্যারাডোনা শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ২৫ নভেম্বর। উল্লেখ্য, প্রয়াত এই কিংবদন্তি ফুটবলারের সম্পত্তির অধিকার নিয়ে ইতিমধ্যেই একাধিক মামলা হয়েছে। পাঁচ সন্তান যেমন সম্পত্তির ভাগ চেয়েছেন, তেমনই আরও ছয় জন নাকি ম্যারাডোনার সম্পত্তির অধিনায়ক দাবি করেছেন।

তাই যে কোনও সময় প্রয়োজন হতে পারে ডিএনএ। তাই প্রয়াত ফুটবল কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারাডোনার দেহ সংরক্ষণ করা হবে। দিনকয়েক আগে এমন রায়ই দিয়েছে আর্জেন্টিনার আদালত।