পাকিস্তানে যেতে চান না শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটাররা

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটারদের বহনকারী বাস সন্ত্রাসী হামলার কবলে পড়ে। এরপর থেকেই পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ খেলতে আগ্রহী নয় কোন দেশই। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) অনেকদিন থেকেই চেষ্টা করছে তাদের দেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরিয়ে আনার। সেপ্টেম্বর মাসে বিশ্ব একাদশ পাকিস্তানে এসে তিন ম্যাচের টি-টুয়েন্টি সিরিজ খেলে গিয়েছে। ২৯ অক্টোবর আসার কথা ছিল শ্রীলঙ্কা দলেরও। কিন্তু শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটাররা তাদের বোর্ডকে জানিয়েছেন তারা পাকিস্তানে যেতে চান না।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে চলছে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। এখানেই ২৬ অক্টোবর থেকে দলদুটোর মধ্যে তিন ম্যাচের টি-টুয়েন্টি সিরিজ শুরু হবে। তবে সিরিজের শেষ টি-টুয়েন্টি ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে লাহোরে। আর শ্রীলঙ্কা দলের আপত্তি এই ম্যাচের ভেন্যু নিয়েই। তারা চাচ্ছেন নিরপেক্ষ কোন ভেন্যুতে ম্যাচটি খেলতে। এই অনুরোধ জানিয়েই ৪০ জন ক্রিকেটার একটি চিঠি স্বাক্ষর করে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট বোর্ডের কাছে পেশ করেছেন।

২০০৯ সালের সেই শ্রীলঙ্কা দলের সদস্য চামারা কাপুগেদারা ও সুরঙ্গা লাকমল আছেন চলতি ওয়ানডে সিরিজের দলে। দলের বাকি সদস্যেরাও সেই হামলার ভয়াবহতা উপলব্ধি করতে পারেন। তাই তারা চাচ্ছেন না প্রথম দেশ হিসেবে পাকিস্তানে ক্রিকেটের প্রত্যাবর্তনের সঙ্গী হতে। দলের একজন ক্রিকেটার বলেছেন, ‘আমার মনে হয় না খেলোয়াড়রা তাদের অবস্থান পাল্টাবে।’ শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলি ডি সিলভা বলেছেন খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা নিশ্চিত করাই বোর্ডের প্রধান লক্ষ্য। অন্যদিকে বোর্ডের সভাপতি থিলাঙ্গা সুমাথিপালা এবং শ্রীলঙ্কার ক্রীড়ামন্ত্রী দয়াসিরি জয়াসেকারা পাকিস্তানে ক্রিকেট দল পাঠাতে খুবই আগ্রহী।

পাকিস্তানে ক্রিকেট ফেরানোর লক্ষ্যে পিসিবির সবচেয়ে বড় সাফল্য সেপ্টেম্বর মাসে তাদের দেশে বিশ্ব একাদশের বিপক্ষে তিনটি টি-টুয়েন্টি ম্যাচের সিরিজ আয়োজন করা। তাই লাহোরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচটি আয়োজনের জন্য বেশ জোর প্রস্তুতি শুরু করেছে তারা। আয়োজন ও নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সন্তুষ্ট হয়ে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) ম্যাচ অফিশিয়াল পাঠাতে সম্মত হয়েছে। তাই শ্রীলঙ্কা দল শেষ পর্যন্ত পাকিস্তানে না গেলে বিপদেই পড়বে পিসিবি।

দুই বোর্ডের কর্মকর্তারাই জানিয়েছেন এই ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার ব্যাপারে তারা আশাবাদী। কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা সত্ত্বেও শ্রীলঙ্কার দলের বেশিরভাগ ক্রিকেটার পাকিস্তানে যেতে রাজি নন। বিশ্ব একাদশের হয়ে থিসারা পেরেরা পাকিস্তানে গিয়েছেন। তিনি সম্ভবত আবার যেতে রাজি হবেন। শেষপর্যন্ত হয়ত পূর্ণ শক্তির শ্রীলঙ্কা দলকে পাকিস্তান পাবে না লাহোর ম্যাচে।

বাংলাদেশ সময়: ১১০৮ ঘণ্টা, ১৫ অক্টোবর ২০১৭
লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/সাদ