ইসলাম ধর্ম বিষয়ক অ্যাপের তথ্য নিচ্ছে মার্কিন সশস্ত্র বাহিনী

islamic app

স্মার্টফোনে বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে আমরা অনেক কিছু জানতে ও অনেক প্রকার সেবা গ্রহন করে থাকি। এবার এই ইসলাম ধর্ম বিষয়ক স্মার্টফোন ভিত্তিক বিভিন্ন বহুল ব্যবহৃত অ্যাপ থেকে ব্যবহারকারীদের তথ্য সংগ্রহ করছে মার্কিন সশস্ত্র বাহিনী। এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের রিয়েল টাইম লোকেশনসহ বিভিন্ন তথ্য চলে যাচ্ছে দেশটির স্পেশাল অপারেশনস কমান্ড কর্তৃপক্ষের কাছে।

সম্প্রতি অনলাইন ম্যাগাজিন মাদারবোর্ড-এর এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে উঠে আসে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য। বিষয়টি গণমাধ্যমে এলে বেশ সোজাসাপ্টাভাবে মেনেও নেওয়া হয়েছে মার্কিন সশস্ত্র বাহিনীর পক্ষ থেকে।

মাদারবোর্ড-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভেতরে এবং বাইরে ব্যবহৃত বিভিন্ন অ্যাপ থেকে ব্যবহারকারীদের অবস্থানের লাইভ তথ্য নিচ্ছে সশস্ত্র বাহিনী। এসব অ্যাপের মধ্যে ইসলাম ধর্ম বিষয়ক অ্যাপ রয়েছে যেগুলো মূলত ইসলাম ধর্মের অনুসারীরা ব্যবহার করেন।

টার্গেট করা অ্যাপগুলোর মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় একটি অ্যাপ হচ্ছে ‘মুসলিম প্রো’। নামাজ এবং কোরআন বিষয়ক এই অ্যাপটি বিশ্বজুড়ে ৯৮ মিলিয়নেরও বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে। মার্কিন সশস্ত্র বাহিনীর নজর থেকে বাদ যায়নি একটি মুসলিম ডেটিং অ্যাপও। অবস্থানের পাশাপাশি ব্যবহারকারীর ইন্টারনেট মাধ্যম যেমন- ওয়াইফাই এর নামসহ অন্যান্য তথ্যও হাতিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

সশস্ত্র বাহিনীর কাছে গ্রাহকদের এসব তথ্য বিক্রি করে দিচ্ছে বিভিন্ন অ্যাপ প্ল্যাটফর্ম। এমন একটি প্ল্যাটফর্ম ‘এক্স-মুড’ এর দেওয়া তথ্যমতে, শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেই ২৮ মিলিয়ন ডিভাইস এবং যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে পৃথিবীজুড়ে অন্তত ৪০ মিলিয়ন ডিভাইস নিয়মিত ট্র্যাক করে প্রতিষ্ঠানটি। আর সেখান থেকে প্রাপ্ত ডাটা বিক্রি করা হয় সশস্ত্র বাহিনী এবং গোয়েন্দা বিভাগের কাছে।

এমন তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার বিষয়টি অকপটে স্বীকার করে নিয়েছে স্পেশাল অপারেশন কমান্ড কর্তৃপক্ষ। নিজেদের এমন কাজের সাফাই দিয়ে নেভি কমান্ডার টিম হকিন্স বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ভেতরে এবং বাইরে স্পেশাল অপারেশনস বাহিনীগুলোর বিভিন্ন মিশনে সহায়তা করতে এসব অ্যাপে আমরা প্রবেশ নিয়ে থাকি। মার্কিন নাগরিকদের গোপনীয়তা, নাগরিক স্বাধীনতা, সাংবিধানিক এবং আইনি অধিকার রক্ষার জন্য আমরা প্রতিষ্ঠিত পদ্ধতি ও নীতিমালা কঠোরভাবে অনুসরণ করি।