চাঁদ থেকে ‘মাটি’ ও পাথর’ সংগ্রহ করে ফিরলো চীনের চন্দ্রযান

moon

প্রায় অর্ধশত বছর পর আবারো চন্দ্রযানের মাধ্যমে চাঁদ থেকে ‘মাটি’ ও পাথরের সংগ্রহ করে পৃথিবীতে আনা হয়। চীন পরিচালিত এই চন্দ্রযানের নাম চ্যাং’ই। দেশটির স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ভোররাতে চন্দ্রযানটি উত্তরাঞ্চলীয় অন্তঃমঙ্গোলিয়া স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের সিজিওয়াং ব্যানারে অবতরণ করে বলে চায়না ন্যাশনাল স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (সিএনএসএ) এর বরাতে জানিয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা সিনহুয়া।

গত ২৪ নভেম্বর চ্যাং’ই মহাকাশযান উৎক্ষেপণ করেছিল চীন। এই মহাকাশযানে চাঁদের কক্ষপথে যাওয়ার জন্য নকশা করা একটি অর্বিটার, একটি চন্দ্রযান ও চন্দ্রযানকে চাঁদের পিঠে নামানো ও ফিরিয়ে আনতে সক্ষম আরো দুটি যান ছিল।

১ ডিসেম্বর চীনের স্থানীয় সময় রাত ১১টা ১১ মিনিটে চন্দ্রযানটি চাঁদের নিকট প্রান্তের ‘ঝড়ের মহাসাগর’ বলে পরিচিত এলাকার উত্তরে অবতরণ করেছিল।

চায়না এয়ারোস্পেস সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি কর্পোরেশনের আওতাধীন চায়না একাডেমি অব স্পেস টেকনোলজির চ্যাং’ই মিশনের উপপ্রধান নকশাবিদ পাং জিং জানিয়েছিলেন, চ্যাং’ই ৪৪ বছরের মধ্যে পৃথিবী থেকে চাঁদের নমুনা সংগ্রহে যাওয়া প্রথম মিশন।

তাদের চন্দ্রযানটি চাঁদের পৃষ্ঠ থেকে নমুনা সংগ্রহের পাশাপাশি পৃষ্ঠ খুঁড়ে ভিতর থেকেও নমুনা সংগ্রহ করবে বলে জানিয়েছিলেন তিনি। এই অভিযানে চাঁদ থেকে দুই কেজি নমুনা সংগ্রহের পরিকল্পনা করা হয়েছিল।

শেষ পর্যন্ত কতোটা আনা গেছে তা পরবর্তীতে জানা যাবে। এই অভিযান পুরোপুরি সফল হলে যুক্তরাষ্ট্র ও সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের পর চাঁদের নমুনা সংগ্রহ করা তৃতীয় দেশ হবে চীন।

১৯৭০ এর দশকের পর এই প্রথম কোনো চন্দ্রযান চাঁদের নমুনা নিয়ে পৃথিবীতে ফিরল। তাই বিষয়টি নিয়ে বাড়তি উৎসাহ রয়েছে মহাকাশ বিজ্ঞানীদের।